ঢাকা, মঙ্গলবার   ১০ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ২৬ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

জবির নতুন ক্যাম্পাসে ভূমি অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্তদের চেক বিতরণ 

জবি প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ২৩:০১ ১৬ নভেম্বর ২০১৯

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) কেরানীগঞ্জের নতুন ক্যাম্পাসের ভূমি অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তিদের মধ্যে ক্ষতিপূরণের চেক হস্তান্তর করা হয়েছে। শনিবার (১৬ নভেম্বর) দক্ষিণ কেরানীগঞ্জর তেঘরিয়ায় ভূমি অধিগ্রহণে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে চেক বিতরণ করা হয়।

এতে ঢাকা জেলা প্রশাসক আবু সালেহ মুহাম্মদ ফেরদৌস খানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বিদ্যুৎ, জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রনালয় এর প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু। 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে  তিনি বলেন, কেরানীগঞ্জে শিক্ষার আলো ছড়াতে সাহায্য করবে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়। সর্বাধুনিক বিশ্ববিদ্যালয় হবে। শুধু দেশে না, সারাবিশ্বে এর নাম ছড়িয়ে পড়বে।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান এবং কেরানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহীন আলম।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ড. মীজানুর রমান বলেন, এই জমি পেয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় যেমন লাভবান হয়েছে, এখানকার এলাকাবাসীও লাভবান হয়েছে। ব্যাবসা বাণিজ্য এবং আবাসনে সুবিধা পাবেন। কেরানীগঞ্জের মানুষ কোন আন্দোলন ছাড়াই পূর্নাঙ্গ বিশ্ববিদ্যালয় পেয়েছেন। এখানে আজীবন জ্ঞানের অনুশীলন, অনুসন্ধান ও গবেষণা হবে।

তিনি ক্ষতিগ্রস্থদের কোন ধরনের হয়রানি ছাড়া বিনিময়মূল্য নিশ্চিত করার জন্য জেলা প্রশাসকের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। এ সময় উপাচার্য আগামী মাসের মধ্যে দ্রুত চেক হস্তান্তর সম্পন্ন করে জেলা প্রশাসকের জায়গাটা নকশা অনুযায়ী বুঝিয়ে দেওয়ার আহ্বান করেন।

ঢাকা জেলা প্রশাসনের আয়োজনে এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগিতায় চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে  বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও স্থানীয়রা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, গত বছরের ৩ অক্টোবর সচিবালয়ের ১১৭তম সভায় জগন্নাথকে আধুনিক ও বিশ্বমানের বিশ্ববিদ্যালয় করতে কেরানীগঞ্জে প্রায় ২০০ একর ভূমি অধিগ্রহণের চূড়ান্ত অনুমোদন দেয়া হয়। চলতি বছরের ২ জুলাই বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষের নিকট হস্তান্তর করা হয় প্রায় ৯০০ কোটি টাকার চেক।

কেআই/আরকে

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি