ঢাকা, রবিবার   ১৯ জানুয়ারি ২০২০, || মাঘ ৬ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

ট্রাম্পকে অভিশংসনে বাধা নেই

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:১৪ ১ নভেম্বর ২০১৯ | আপডেট: ১১:১৫ ১ নভেম্বর ২০১৯

মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের সদস্যরা আনুষ্ঠানিকভাবে ইউক্রেন কেলেঙ্কারি নিয়ে দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে অভিশংসন বা ইমপিচ করার পক্ষে রায় দিয়েছেন। এতে করে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসন তদন্ত চলতে আর কোনও বাধা থাকল না। 

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার ডেমোক্র্যাট দল নিয়ন্ত্রিত প্রতিনিধি পরিষদে এ সংক্রান্ত ভোটাভুটিতে ২৩২ সদস্য ট্রাম্পকে ইমপিচ করার পক্ষে এবং ১৯৬ সদস্য বিপক্ষে ভোট দেন।

মার্কিন নিউজ চ্যানেল সিবিএস জানিয়েছে, ভোটাভুটিতে ডেমোক্র্যাট দলের দুই সদস্য ইমপিচমেন্টের বিপক্ষে এবং একজন স্বতন্ত্র সদস্য ইমপিচমেন্টের পক্ষে ভোট দেন। অন্যদিকে, রিপাবলিকান দলের সব সদস্য ইমপিচমেন্টের বিপক্ষে ভোট দিয়েছেন।

প্রতিনিধি পরিষদে ভোটাভুটির পর ট্রাম্পকে ইমপিচ করার লক্ষ্যে তদন্ত চালানো এবং এ সংক্রান্ত পরবর্তী প্রক্রিয়ার বিস্তারিত পরিকল্পনা অনুমোদিত হয়।

এদিকে, প্রতিনিধি পরিষদের ভোটাভুটির কিছুক্ষণ পরই হোয়াইট হাউজ এ ব্যাপারে তার প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। 

হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র স্টেফানি গ্রিশাম ইমপিচমেন্ট প্রক্রিয়াকে অন্যায়, সংবিধানের লঙ্ঘন এবং মার্কিন রীতিনীতির বিরোধী বলে উল্লেখ করেন। 

আর প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প তার প্রতিক্রিয়ায় ইমপিচমেন্ট প্রক্রিয়াকে ‘আমেরিকার ইতিহাসে সবচেয়ে বড় নিপীড়ন’ বলে মন্তব্য করেন।

ট্রাম্প তার প্রধান রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার জন্য একটি বিদেশি রাষ্ট্রের সাহায্য চেয়ে প্রেসিডেন্ট পদে অমর্যাদা করেছেন বলে ডেমোক্র্যাট দল তাকে ইমপিচ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে, ২০২০ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তিনি যাতে আবার নির্বাচিত হতে পারেন সেজন্য বিদেশি সাহায্য চেয়েছেন। 

এরই অংশ হিসেবে তিনি ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভোলোদিমিরি জেলিনস্কির ওপর চাপ সৃষ্টি করেন যে, ডেমোক্র্যাট দলের সম্ভাব্য প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জো বাইডেন এবং তার ছেলের দুর্নীতির বিরুদ্ধে তদন্ত করতে হবে। তা নাহলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ইউক্রেনকে সামরিক সহায়তা দেয়া বন্ধ করে দেবেন।

সূত্রঃ পার্সটুডে

আই/

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি