ঢাকা, সোমবার   ১৭ মে ২০২১, || জ্যৈষ্ঠ ২ ১৪২৮

যবিপ্রবির জিনোম সেন্টারে ১৩টি নমুনা করোনা পজিটিভ

রাসেল আহমেদ, যবিপ্রবি প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ২১:২৪, ২২ এপ্রিল ২০২০

গত ২৪ ঘন্টায় যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় জিনোম সেন্টার সাত জেলা থেকে আগত ৬৫ নমুনার ১৩ টি করোনা পজিটিভ এসেছে। প্রাপ্ত ৬৫টি নমুনার মধ্যে যশোরে ৪ জন, নড়াইলে ৫ জন, কুষ্টিয়া ২ জন, মেহেরপুর ১ জন এবং মাগুরা ১ জনসহ মোট ১৩ জনের করোনা পজিটিভ এসেছে। এ পর্যন্ত যশোরে ৫ জন করোনা রোগী শনাক্ত হল এবং নড়াইলে পাঁচজন আক্রান্তের মধ্যে চারজনই চিকিৎসক।

যশোর জেলা সিভিল সার্জন ডাক্তার দিলীপ কুমার রায় বলেন, সংশ্লিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ও ইউ এন ও কে দায়িত্ব দিয়েছি তারা করোনা পজিটিভ রোগীকে পর্যবেক্ষণ করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন এবং তাদের কন্টাক্ট এরিয়া অর্থাৎ তারা কতদূর পর্যন্ত চলাফেরা করেছে সে সমস্ত এলাকা লোকডাউন করা হবে।

নিরাপত্তার বিষয়ে জানতে চাইলে যবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন জানান, “ যবিপ্রবিতে কোনো করোনা রোগী পরীক্ষা করাতে আসবে না, পার্শ্ববর্তী জেলাগুলো থেকে সিভিল সার্জনের মাধ্যমে অতি সুরক্ষিতভাবে নমুনা আসছে। আর আমাদের জিনোম সেন্টারে সতর্কতার সাথে তা পরীক্ষা হবে, এ নিয়ে আতঙ্কিত বা ভীতসন্ত্রস্ত হওয়ার কিছু নেই।"

উল্লেখ্য যে, যবিপ্রবির জিনোম সেন্টারে করোনাভাইরাস পরীক্ষার জন্য সংশ্লিষ্টদের দুটি দলে ভাগ করা হয়েছে। প্রত্যেকে দলে চারজন বিশেষজ্ঞ ও দুইজন ল্যাব টেকনোলজিস্ট রয়েছে। প্রথম দলটি ১৪দিন কাজ করার পর কোয়ারেন্টাইনে চলে যাবে, এরপর দ্বিতীয় দলটি কাজ করবে। 

এভাবে পর্যায়ক্রমে দুটি দলই কাজ করতে থাকবে। প্রথম ১৪দিন কাজ করেছেন জিনোম সেন্টারের সহযোগী পরিচালক ও অণুজীববিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. মো. ইকবাল কবীর জাহিদ, একই বিভাগের সহকারী অধ্যাপক অভিনু কিবরিয়া ইসলাম, বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. হাসান মোহাম্মাদ আল ইমরান ও অণুজীব বিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক মো. সাজিদ হাসান, জিনোম সেন্টারের ল্যাব টেকনিশিয়ান মাসুদুর রহমান ও দীপংকর চক্রবর্তী।

আরকে//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি