ঢাকা, শনিবার   ০৩ ডিসেম্বর ২০২২

২০২১ এ বলিউড সেরা ১০ সিনেমা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:৫৭, ২৭ ডিসেম্বর ২০২১

করোনা অতীমারি যেনো স্তব্ধ করে দিয়েছিলো বলিউডকে। ২০২০ এর পর চলতি বছরে ধীরে ধীরে ছন্দে ফিরেছে বলিউড। ওটিটিতে চোখ রাখা থেকে আবার প্রেক্ষাগৃহে হাউজফুল বোর্ড ঝোলাতে বাধ্য করেছে দর্শক। কিন্তু কোন দশটি সিনেমা রয়েছে ২০২১ এর সেরা ছবির তালিকায়? 

শেরশাহ: কার্গিল যুদ্ধের নায়ক বিক্রম বাত্রার এই বায়োপিকে ঠাসবুনোট চিত্রনাট্যের সঙ্গে প্রথমেই নজর করেছিল পর্দায় সিদ্ধার্থ মালহোত্রা এবং কিয়ারা আডবানির রসায়ন।

বিষ্ণু বর্ধনের পরিচালিত এই ছবির গানও সমানভাবে জনপ্রিয় হয়েছিল দর্শকমহলে। চলতি বছরের অনেকের ক্ষেত্রেই তাই এই ছবি 'মাস্ট ওয়াচ' এর তালিকায় জায়গা করে নিয়েছিল।

চন্ডীগড় করে আশিকি: বছরের একেবারে শেষদিকে বক্স অফিসে ২০২১ এর অন্যতম সুপারহিট উপহার দিয়েছেন আয়ুষ্মান খুরানা এবং বাণী কাপুর অভিনীত এই ছবি। আয়ুষ্মান মানেই যে তথাকথিত বাণিজ্যিক ছবির ফর্মুলা থেকে নতুন কিছু, তা এই ছবিতেও স্পষ্ট।

সমাজের তথাকথিত নীতি পুলিশদের চোখে চোখ রেখে রূপান্তরিত নারীর সঙ্গে প্রেমই হয়ে উঠেছে এই ছবির মূল উপজীব্য।

বেল বটম: আশির দশকের প্রেক্ষাপটে ভারতীয় বিমান হাইজ্যাকের ঘটনাই এই ছবির মূল গল্প। কীভাবে ভারতীয় গুপ্তচর সংস্থা 'র' এর কর্মীরা ক্ষুরধার বুদ্ধি খাটিয়ে পাকিস্তানী সন্ত্রাসবাদীদের হাত থেকে বিমানযাত্রী ঠাসা সেই হাইজ্যাক বিমান উদ্ধার করল তাই নিয়েই এগোয় ছবির গল্প। প্রধান চরিত্রে অক্ষয় কুমার যে এক্ষেত্রে পুরোপুরি সফল তা এই ছবি ঘিরে দর্শকদের আলোচনাই প্রমাণ করেছিল।

তুফান: 'ভাগ মিলখা ভাগ' এর পর ফের জুটি বেঁধেছিল পরিচালক রাকেশ ওমপ্রকাশ মেহরা এবং অভিনেতা ফারহান আখতার। তার উপর স্পোর্টসধর্মী গল্প। যা আশা করা হয়েছিল তাই হল। জমাটি গল্প, দুরন্ত অভিনয় এবং ঝরঝরে সংলাপ সব মিলিয়ে দর্শকদের মন ভিজিয়েছিল এই ছবি। এবং বিশেষভাবে নজর করেছিল তুফানরূপী ফারহানের পেটানো, সুঠাম চেহারা।

জয় ভীম: গুগল ইন্ডিয়ায় ২০২১ এর সবথেকে বেশি যে ছবির ব্যাপারে সার্চ করা হয়েছে তার নাম 'জয় ভীম'। দক্ষিণী তারকা সুরিয়া অভিনীত এই লিগ্যাল ড্রামা ভুল জনপ্রিয়তা পাওয়ার সঙ্গে একাধিক বিতর্কেও জড়িয়েছিল।

সূর্যবংশী: করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের পর সিনেমা হলে দর্শকদের ফেরাতে যে ছবির দিকে তাকিয়ে আশায় বুক বেঁধেছিল প্রযোজক থেকে শুরু করে হল মালিকের দল। বছরের অন্যতম সেরা সুপারহিট হওয়ার পাশাপাশি সেই আশাপূরণ করতে যে সর্বাংশে সফল অক্ষয়-ক্যাটরিনা অভিনীত এই ছবি তা আলাদা করে না বললেও চলে।

৮৩: ‘৮৩’ মুক্তি পেতেই আনন্দে ভাসছে গোটা ভারত। শুধু সিনেমাপ্রেমীদের জন্য নয়, বরং ভারতীয়দের জন্যই এই সিনেমা খুব স্পেশাল! প্রথমবার বিশ্বকাপ ক্রিকেটের ট্রফি এসেছিল ভারতে! আর সেই ম্যাজিকই কবীর খানের পরিচালনায় পর্দায় নিয়ে এসেছেন রণবীর সিং, দীপিকা পাড়ুকোন।

সন্দীপ অউর পিঙ্কি ফারার: অর্জুন কাপুর এবং পরিণীতির চোপড়ার অনবদ্য অভিনয় এই ছবিকে দর্শকদের ভালো লাগার তালিকায় উঠিয়ে দিতে দেরি করেনি। পাশাপাশি পরিচালক দিবাকর বন্দ্যোপাধ্যায়ের দুরন্ত নির্দেশনা যে এই ডার্ক কমেডিকে দর্শকদের ভালো লাগার রেশ আরও বাড়িয়েছে সেকথা স্বীকার করে নিয়েছেন ছবি সমালোচকের দল।

শেরনি: গল্পের কেন্দ্রে রয়েছে দু'টি বিষয়। জঙ্গলে মানুষখেকো হয়ে যাওয়া এক বাঘিনী এবং এক দাপুটে মহিলা ফরেস্ট অফিসার। তার অন্যান্য ছবির মতো এই ছবিতেও দুরন্ত পারফর্মেন্স দিয়ে দর্শকদের মুগ্ধ করতে এতটুকু সময় বেশি নেননি বিদ্যা। পাশাপাশি ছবির পরতে পরতে লেগে থাকা থ্রিল এবং ভয়ঙ্কর সুন্দর জঙ্গলের অনবদ্য সব ফ্রেম এই সিনেমাকে নিয়ে গেছে অন্য উচ্চতায়।

সর্দার উধম: সুজিত সরকার পরিচালিত ছবি 'সর্দার উধম'। ইংরেজ শাসিত ভারতবর্ষে নারকীয় জালিওয়ানালাবাগ হত্যাকাণ্ড থেকে শুরু এই ছবির গল্প। ইতিহাসকে প্রামাণ্য করে তৈরি বিপ্লবী সর্দার উধম সিংয়ের এই বায়োপিক দেখে মুগ্ধ হওয়ার পাশাপাশি শিউরে উঠেছিল দর্শককুল। সঙ্গে সর্দার উধমের ভূমিকায় ভিকি কৌশলের নজরকাড়া অভিনয় এ ছবিকে নিয়ে গেছে অন্য উচ্চতায়।

সূত্রঃহিন্দুস্তান টাইমস

আরএমএ


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি