ঢাকা, শনিবার   ১৭ এপ্রিল ২০২১, || বৈশাখ ৩ ১৪২৮

‘এনআরসি নিয়ে পরস্পরবিরোধী কথা বলছেন মোদি-অমিত শাহ’

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:৩৩, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৯

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, নাগরিকপঞ্জিকরণ (এনআরসি) করা নিয়ে পরস্পরবিরোধী কথা বলছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। তবে এই দু’জনের মধ্যে কে সত্যি বলছেন সেটাই দেখার।

এমনভাবেই কেন্দ্রীয় সরকারকে কটাক্ষ করে তৃণমূল নেত্রী হুশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, বাংলায় এনআরসি প্রয়োগ করতে দেবেন না।

এবার সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন এবং এনআরসির বিরুদ্ধে করা একটি সমাবেশে যোগ দিয়ে মমতা বলেন, বিজেপির চেয়ে বড় কোনও জালিয়াত ছিল না এবং এই দলের উদ্দেশ্য নিয়ে জনগণের সচেতন হওয়া উচিত।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী বলছেন, জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বা এনআরসি সারা দেশে চালু হওয়া নিয়ে কোনও আলোচনা বা প্রস্তাব হয়নি। অথচ কিছুদিন আগেই বিজেপি সভাপতি এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেন যে এনআরসি দেশ জুড়েই করা হবে। উভয় বক্তব্যই পরস্পরবিরোধী। আমরা আশ্চর্য হচ্ছি এটা ভেবে যে কে সত্যি কথা বলছেন। ওরা আসলে বিভ্রান্তি সৃষ্টির চেষ্টা করছেন।’

দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, গত রোববার দিল্লিতে একটি সমাবেশ চলাকালীন বলেন, তার সরকার ২০১৪ সালে প্রথমবার ক্ষমতায় আসার পর থেকে কোনওদিনই গোটা দেশে জাতীয় নাগরিকপঞ্জি বা এনআরসি চালু হবে এমন কথা আলোচনা করেননি।

এই প্রসঙ্গেই তৃণমূল নেত্রী বলেন, আমরা যা করছি তা জনস্বার্থে, বিজেপিও দাবি করছে যে তারা জনস্বার্থেই সব কিছু করছে, এবার মানুষ ঠিক করবেন যে তারা কী করবেন।

বিজেপি ভারতকে ভাগ করার চেষ্টা করছে তবে দেশের মানুষ তা কিছুতেই হতে দেবে না বলে হুঁশিয়ারি দেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, আমি যতদিন বেঁচে আছি ততদিন তাদের বাংলায় সিএএ বা এনআরসি প্রয়োগ করতে এবং ধর্মের ভিত্তিতে দেশকে বিভক্ত করতে দেব না। আসামে, যেখানে বিজেপি ক্ষমতায় রয়েছে, সেখানে শরণার্থী শিবির তৈরি করা হয়েছে। বাংলায় আমরা কখনই তা করতে দেব না।

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন, ২০১৯-এর বিরুদ্ধে বিধান সরণির স্বামী বিবেকানন্দের মূর্তি থেকে গান্ধি ভবন পর্যন্ত বিক্ষোভ মিছিলে নেতৃত্ব দেওয়ার সময় মোদি সরকারকে তীব্র শ্লেষেও বেঁধেন মমতা। তৃণমূল নেত্রী বলেন, ঝাড়খণ্ড বিধানসভা ভোটে পরাজিত করে ‘অহংকারী’ বিজেপিকে উপযুক্ত জবাব দিয়েছে।

একে//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি