ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৮ মে ২০২৪

ব্যাটিং ব্যর্থতার কারণে ক্ষমা চাইলেন মুশফিক

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২১:০১, ২ অক্টোবর ২০১৭ | আপডেট: ১৫:৪১, ৩ অক্টোবর ২০১৭

পচেফস্ট্রুম টেস্টে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ৩৩৩ রানের বিশাল ব্যবধানে হেরেছে বাংলাদেশ। বোলিং ব্যর্থতার সঙ্গে ব্যাটিংয়েও ব্যর্থতা ছিলো টাইগারদের। এতো বড় ব্যবধানে হারের কারণে দেশবাসীর কাছে ক্ষমা চেয়েছেন টাইগার অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম।

সেনওয়েস পার্কে সোমবার প্রথম টেস্টের পঞ্চম ও শেষ দিন বাংলাদেশ টিকে মাত্র ১৭.১ ওভার। প্রথমবারের মতো দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে অলআউট হয় একশ রানের নিচে।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে দলের প্রতিনিধি হয়ে আসেন অধিনায়ক মুশফিক। দ্বিতীয় ইনিংসে দলের ব্যাটিংয়ে তিনি ভীষণ হতাশার কথাও জানান তিনি।

বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস শেষে মুশফিকুর রহিম বুঝে নিয়েছিলেন, পচেফস্ট্রুম টেস্ট জেতা সম্ভব নয়। তার কাছে সবচেয়ে বাস্তব সম্মত ফল ছিল ড্র। কিন্তু বাজে ব্যাটিংয়ে তার ধারে কাছেও যেতে পারেনি বাংলাদেশ। দ্বিতীয় ইনিংসে ৯০ রানে অলআউট হয়ে লজ্জাজনক হার মেনে নিতে হয় সফরকারীদের।

টাইগার অধিনায়ক বলেন, “আমাদের ব্যাটিংয়ের ব্যাখ্যার কথা যদি বলেন, অবশ্য হতাশাজনক। সত্যি বলতে কি, অধিনায়ক হিসেবে আমি নিজেই ভুলে গেছি বাংলাদেশ শেষ কবে এমন ব্যাটিং করেছে। একশ রানের নিচে শেষ কবে অলআউট হয়েছি নিজেও মনে করতে পারছি না। খুবই খারাপ লাগছে।”

খেলায় জয়-পরাজয় আছে। প্রতিপক্ষ ভালো খেললে পরাজয় মেনে নিতেও আপত্তি নেই মুশফিকের। কিন্তু এমন অসহায় আত্মসমর্পণ মেনে নিতে পারছেন না তিনি।

মুশিফিক আরও বলেন, “হারারও অনেক ধরন আছে। অবশ্যই ম্যাচ বাঁচানো খুব কঠিন হত। কিন্তু অন্তত দুইটা সেশন খেলার মতো সামর্থ্য তো আমাদের আছে। সেদিক থেকে বলব, অধিনায়ক হিসেবে, ব্যাটসম্যান হিসেবে খুব হতাশ। খুবই খারাপ লাগছে। এভাবে হারতে হবে কখনও ভাবিনি। এই হারের জন্য আমি জাতির কাছে ক্ষমা চাইছি।”

২০০৭ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শেষবার একশ রানের নিচে অলআউট হয়েছিল বাংলাদেশ। 

 

টিকে

 


Ekushey Television Ltd.





© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি