ঢাকা, শনিবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, || আশ্বিন ২ ১৪২৮

কোহলীর সামনে আরেক রেকর্ডের হাতছানি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২১:৫৭, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

ঘরে বাইরে সব জায়গায়ই এখন চলছে বিরাট কোহলীর বসন্ত। আনুশকার সঙ্গে দাম্পত্য সম্পর্ক যেমন চলছে জম্পেশ। তেমনি খেলার মাঠে তিনি একজন সফল অধিনায়ক। তার হাত ধরেই দক্ষিণ আফ্রিকার মাঠে প্রথম ওয়ানডে সিরিজ জিতেছে ভারত। দলীয় অর্জন একপাশে রাখলে তার ব্যক্তিগত অর্জন তো আরও অনেক বেশি। সব মিলিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা যেন কোহলির দুহাত ভরে দিয়েছে।

আজই শেষ হচ্ছে তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচ দিয়ে ভারতের দক্ষিণ আফ্রিকা অভিযান। বিদায় বেলায় কেপটাউনে কোহলির জন্য অপেক্ষা করছে কয়েকটি রেকর্ডের হাতছানি। প্রথমটি ভারতীয় ক্রিকেটার হিসেবে এক সফরে এক হাজার রান করার রেকর্ড। দ্বিতীয়টি এক সফরে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড করে ভিভ রিচার্ডসকে ছোঁয়ার হাতছানি। প্রথমটা স্পর্শ করতে ভারতীয় অধিনায়ককে করতে হবে ১২৯ আর দ্বিতীয়টার জন্য প্রয়োজন ১৭৪। ম্যাচটি টি-টোয়েন্টি বলে দুটোই বেশ কষ্টসাধ্য। কিন্তু ব্যাটসম্যানের নাম যখন কোহলি, কোনো কিছুই উড়িয়ে দেওয়া যায় না।

আফ্রিকা সফরের তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে কোহলির রান ২৮৬, ছয় ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে তিন সেঞ্চুরিতে ৫৫৮। ওয়ানডের গতিটা টি-টোয়েন্টিতে ধরে রাখতে পারেননি বলেই রেকর্ড ছোঁয়ার সম্ভাবনা একটু দূরে সরে গেছে। টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ২৬ রানের পর দ্বিতীয় ম্যাচে মাত্র ১ রান করেছেন। অর্থাৎ সব মিলিয়ে তার রান ৮৭১। যোগ-বিয়োগের সোজা অঙ্কে এক হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করতে তাঁর প্রয়োজন আর ১২৯ রান।

কোহলির সামনে প্রথম ভারতীয় হিসেবে এ রেকর্ড গড়ার হাতছানি থাকলেও এক সফরে ন্যূনতম এক হাজার রান করার রেকর্ড কিন্তু আগেই একজন করেছেন। ১৯৭৬ সালে ইংল্যান্ড সফরে ১০৪৫ রান করেছিলেন ভিভ রিচার্ডস। সেটাই প্রথম, সেটাই শেষ! অর্থাৎ রিচার্ডসের এই রেকর্ড ছুঁতে কোহলিকে করতে হবে ১৭৪। ব্যাপারটা অনেক কঠিন, কিন্তু এক ম্যাচে ১৭৫ রান (ক্রিস গেইলের) করার ঘটনা ড্রেসিংরুমে বসে দেখার অভিজ্ঞতা আছে কোহলির। তাহলে নিজেও কেন সে চেষ্টা করবেন না!

এসি/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি