ঢাকা, শনিবার   ১৭ এপ্রিল ২০২১, || বৈশাখ ৪ ১৪২৮

আত্মহত্যার অনুমতি চেয়ে দাদা-নাতির আবেদন!

মেহেরপুর প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১৮:৫০, ৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১

দাদা-নাতির আবেদন শুনছেন জেলা প্রশাসক ড. মোঃ মুনসুর আলম খান।

দাদা-নাতির আবেদন শুনছেন জেলা প্রশাসক ড. মোঃ মুনসুর আলম খান।

মেহেরপুরে আত্মহত্যার অনুমতি চেয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করেছেন ৮০ বছরের বৃদ্ধ মুসা করিম ও তার নাতি আকাশ হোসেন। আজ মঙ্গলবার দুপুরে বিষের বোতল নিয়ে আত্মহত্যার আবেদনপত্র জমা দেন জেলা প্রশাসক ড. মোঃ মুনসুর আলম খানের কাছে। বৃদ্ধ মুসা করিম মুজিবনগর উপজেলার মহাজনপুর ইউনিয়নের কোমরপুর গ্রামের মৃত ফজের হালসানার পুত্র।

বৃদ্ধ মুসা করিম বলেন, আমার যে জায়গা-জমি ছিল, সেগুলো সবার নামে সমবন্টন করে দিয়েছি। অবশিষ্ট ছিল বাড়ির ৪ শতক জমি। সেটি আমার বড় ছেলের ২য় স্ত্রীর ছেলে (আমার নাতি) আকাশের নামে লিখে দিয়েছি। বিষয়টি জানতে পেরে আমার বড় ছেলের প্রথম স্ত্রী আসমা খাতুন, তার ছেলে রিপন ও ফারুক আমাকে ও আমার নাতী আকাশকে জোরপূর্বক বাড়ি থেকে বের করে দিয়েছে। সমাজপতিসহ এলাকার অনেকের কাছে বিচার চেয়েও কোনও ফল হয়নি। কেউ আমাকে বাড়িতে ফিরে যাওয়ার ব্যবস্থা করে দিতে পারেনি। যে কারণে বাধ্য হয়ে বিষের বোতল হাতে নিয়ে আত্মহত্যার অনুমতি চেয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন জানিয়েছি। 

আক্ষেপের সুরে তিনি আরও বলেন, আমার ছোট ছেলে ও তার স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে কোনও সমস্যা নেই। তবে বড় ছেলের প্রথম স্ত্রী আসমা খাতুন ও তার দুই ছেলে দুর্ধর্ষ প্রকৃতির। ভয়ে কেউ তাদের বিরুদ্ধে কথা বলতে চায়না। তাই এই বৃদ্ধ বয়সে আমি বাড়ি ছাড়া, অসহায় অবস্থায় রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছি। 

এ বিষয়ে মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুজন সরকার বলেন, জেলা প্রশাসকের নির্দেশনা প্রাপ্তির পর পরই আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কাজ শুরু হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে বৃদ্ধকে সব ধরনের আইনগত সহায়তা দেওয়া হবে। 

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা প্রশাসক ডঃ মুহাম্মদ মুনসুর আলম খান বলেন, যারা বৃদ্ধ মুসা করিমের হাতে বিষের বোতল দিয়েছে, তারা ভুল করেছে। বিষের বোতল হাতে নিয়ে মৃত্যুর আবেদন- এটা কোনও সমাধান নয়। বরং আমরা যারা সচেতন মানুষ, তাদের উচিত ছিলো আগে বিষের বোতল বৃদ্ধ মুসা করিমের কাছ থেকে সরিয়ে নেয়া। বিষয়টি সমাধানের জন্য উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। 

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি