ঢাকা, শনিবার   ১৪ ডিসেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ৩০ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

খেলবেন মুস্তাফিজ!

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:৫২ ২১ নভেম্বর ২০১৯

ইন্দোরের খত এখনো শুকায়নি টাইগারদের। যে ক্ষত তৈরি করেছিলেন ব্যাটসম্যানরা। তবে বোলাররা যে খুব বেশি ভাল করতে পেরেছিলেন তা কিন্তু নয়। একমাত্র পেসার আবু জায়েদ রাহী ছাড়া অন্য পেসার এবাদাত হোসেন ও দুই স্পিনারের কেউই নিজেদের সামর্থের প্রমাণ দিতে পারেননি। ফলে দীর্ঘদিন পর ইনিংস হারের লজ্জায় ডুবেছে বাংলাদেশ। 

সে ম্যাচে ছন্দহীনতায় নামা হয়নি আরেক পেসার কাটার মোস্তাফিজের। টেস্টের আগে তিন টি-টোয়েন্টির একটিতেও উইকেট জুটেনি কাটারের ঝুলিতে। ফলে, স্কোয়াডে থাকলেও, সে বিবেচনায় টেস্টে তাকে নামায়নি টিম ম্যানেজমেন্ট। তবে, তার জায়গায় নামা এবাদাত হোসেনও হতাশায় ডুবিয়েছেন বাংলাদেশকে। 

ইন্দোরের পিচের সঙ্গে ইডেনের খুব একটা মিল নেই। এখানে সুইং এবং বাউন্স সামলাতে বেশ হিমশিম খেতে হবে ব্যাটসম্যানদের। শীতের কারণে স্পিনাররা প্রথম দিকে সুবিধা করতে না পারলেও, ধীরে ধীরে তা নিয়ন্ত্রণে আসবে। তবে তা খুব বেশি নয়। পেসাররাই এখানে মূল ভরসা। 

ফলে ইডেন টেস্টে টাইগার শিবিরে ব্যাটিং-বোলিংয়ে আসতে পারে একাধিক পরিবর্তন। সে আভাস দিয়েই বুধবার ইডেনের মাঠে অনুশীলন করেছেন এ পেসার। ঘাম ঝড়িয়েছেন অনেকক্ষণ।

ইডেনের গতিময় পিচ ও গোলাপি বল তার প্রত্যাবর্তনের মঞ্চ হতে পারে। গঙ্গার দিক থেকে আসা হাওয়া ও ঘাসে ভরা উইকেটের সাহায্য যদি এ ম্যাচেও তিনি তুলতে না পারেন, তা হলে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলে তার ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন উঠতে বাধ্য। সূত্রের খবর, মুস্তাফিজুরের সঙ্গে আল আমিনকেও খেলানো হতে পারে। তৃতীয় পেসার হয়তো আবু জায়েদ রাহী। 

প্রথম টেস্টে দুই পেসার রাহী ও এবাদত হোসেনকে ভারতীয় বোলাররা কিছুটা সমীহ করলেও, দুই স্পিনার মেহদি হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলামকে পাত্তাই দেয়নি মায়াঙ্কা আগারওয়ালরা। ফলে, ইনিংস ও ১৩০ রানের বড় জয় পায় ভারত। এতে করে ১-০ তে এগিয়ে যায় কোহলিরা। 

স্বভাবতই প্রশ্ন উঠেছে- দ্বিতীয় ও শেষ টেস্টেও কি দুই স্পিনারে ভরসা রাখবে বাংলাদেশ? না কি তিন পেসার, এক স্পিনার ও একজন অতিরিক্ত ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলবেন মুমিনুলরা?

প্রথম টেস্টে ভারতের দুই স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন ও রবিন্দ্র জাদেজা মুশিফিকদের কাছ থেকে সমীহ আদায় করেছিলেন। দুই ইনিংসে নিয়েছেন ৫টি উইকেট, সবকয়টিই অশ্বিনের ঝুলিতে। উইকেট না পেলেও দুই ইনিংসে রান আটকে রেখে সঙ্গী বোলারকে চাপ সৃষ্টি করার সুযোগ করে দিয়েছিলেন জাদেজা।

কিন্তু বাংলাদেশের স্পিনাররা সেটিও করতে পারেননি। দিনে হওয়া ইন্দোরের ম্যাচেই যেখানে বড্ড বিবর্ণ ছিলো স্পিনাররা, সেখানে দিবারাত্রির ইডেন টেস্টে তাদের নিয়ে আশা করাটা বেশ কঠিনই বটে। এই বাস্তবতা মেনে নিয়েছেন স্পিন কোচ ড্যানিয়েল ভেট্টরিও। তাই স্পিনারদের কাছ থেকে তার চাওয়াটা খুব বেশি নয়। 

যেহেতু সূর্যাস্তের পর থাকবে শিশিরের দৌরাত্ম্য, তাই স্পিনারদের চেয়ে পেসারের ওপরেই বেশি ভরসা করতে চান ভেট্টরি। আর এক্ষেত্রে রান আটকে রেখে পেসারদের সাহায্য করাই হবে স্পিনারদের মূল কাজ, এমনটাই মানছেন টাইগাদের স্পিন কোচ। 

ফলে,  ইন্দোর টেস্টে প্রত্যাশা পূরণ করতে ব্যর্থ হওয়া পেসার এবাদাত হোসেন এ ম্যাচে বাদ পড়ার সম্ভাবনাই বেশি। তার জায়গায় খেলতে পারেন মুস্তাফিজ। এছাড়া এদিন খেলতে পারেন সৌম্য সরকারও। 

শুক্রবার (২২ নভেম্বর) কোলকাতার ইডেনে ফ্লাড লাইটের আলোয় ঐতিহাসিক দিবারাত্রির ম্যাচটি শুরু হবে স্থানীয় সময় দুপুর ১টায়। এ ম্যাচের মধ্যদিয়ে প্রথমবারের মত গোলাপি বলে যাত্রা শুরু করবে দুই দেশ। গুরুত্বপূর্ণ এ ম্যাচে ঘুরে দাঁড়াতে মরিয়া বাংলাদেশ। 

এআই/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি