ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

‘জুয়া খেলিনি, ক্যাসিনোতে খেতে গিয়েছিলাম’

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২২:৩৭ ৩০ জুলাই ২০১৯

বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচগুলোর ধারাবাহিকতা শ্রীলঙ্কাও বজায় রেখেছে টিম টাইগার। যার ফলে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ খুইয়ে বসেছে তামিমরা। এমনই অবস্থায় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল একটি ভিডিও। যাতে দলের ভারপ্রাপ্ত কোচ খালেদ মাহমুদ সুজনকে দেখা যায় কলম্বোর একটি ক্যাসিনোতে, রমরমা জুয়ার আসরে।

এমনিতেই সম্প্রতি দলের পারফরম্যান্স যাচ্ছেতাই। তার মধ্যে কোচই যদি সময় কাটান জুয়ার আসরে! বিষয়টি কি স্বাভাবিকভাবে নেয়া যায়? না, নিতে পারেননি টাইগার ভক্ত সমর্থকরাও। যে কারণে সমালোচকদের রোষানলে পড়েন খালেদ মাহমুদ সুজন।
 
তবে যার বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ, তাকেও তো সুযোগ দিতে হবে আত্মপক্ষ সমর্থনের। জানতে হবে, ঘটনাটা আসলে কি ছিল। আসলেই ওই ক্যাসিনোতে কি করতে গিয়েছিলেন সুজন? কেন গিয়েছিলেন?

এসব প্রশ্নের জবাবে গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে সেই আত্মপক্ষ সমর্থনই করলেন সুজন। কোচ জানালেন- যা রটেছে, তার আংশিক সত্য হলেও পুরোটা মোটেই সত্য নয়। ক্যাসিনোতে যাওয়ার কথা স্বীকার করলেও জুয়া খেলেননি বলেই দাবি তার।

জাতীয় দলের সাবেক এই অধিনায়ক বলেন, আমার এক বন্ধুকে নিয়ে সেখানে গিয়েছিলাম। ক্ষুধা পেয়েছিল বলে সেখানে যাই খাওয়ার জন্য। ক্যাসিনোতে শুধু কার্ড খেলা হয় না, খাবারও পাওয়া যায়। সে কারণেই ওখানে যাই।

খাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সুজন তাহলে কি জুয়ার আসরেও একটু ঢুঁ মেরে দেখছিলেন? ভাইরাল হওয়া ওই ভিডিও তো সেটাই বলে। এ বিষয়ে সুজন বলেন- আমি জানি, আমি কেন সেখানে গিয়েছিলাম। কার্ড খেলার তো প্রশ্নই ওঠে না। বাংলাদেশ জাতীয় দলের সিরিজ চলছে; কোচ হিসেবে আমার সমস্ত মনোযোগ সেখানে। ক্যাসিনোতে এক বাঙালি ছিলেন। তিনি আমার কাছে কার্ড চাইলে তাকে কার্ডও দিই। ব্যস, এইটুকুই। এখন এ নিয়ে যদি ফেসবুকের মতো জায়গায় আলোচনা-সমালোচনা হয়, তাতে আমার কী করার আছে?

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, কলম্বোর জনপ্রিয় একটি জুয়ার আসর 'বেলিস ক্যাসিনো'তে একজন নারী ওয়েটারের কাছ থেকে ব্যাংকের এটিএম অথবা ক্রেডিট কার্ড ফেরত নিচ্ছেন সুজন। সেটি নিয়ে তিনি চলে যান জুয়ার টেবিলের দিকে। যেখানে আরও কয়েকজনকে বসে থাকতে দেখা যায়।

এদিকে, সুজনের ক্যাসিনো প্রীতির খবর অবশ্য নতুন কিছু নয়। ২০১৫ বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার এক ক্যাসিনোতে গিয়ে পাপারাজ্জিদের চোখে পড়ে গিয়েছিলেন সাবেক এই অলরাউন্ডার। সেবার দলের ম্যানেজার ছিলেন তিনি। 

ওই ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে সুজন জুয়ার কথা অস্বীকার করে বলেছিলেন, রাতের খাবার খুঁজতে গিয়ে ভুলে ক্যাসিনোতে ঢুকে পড়েন। এবারও কিন্তু ঠিক তেমনটাই বললেন সুজন।

এনএস/এসি
 

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি