Ekushey Television Ltd.

টি-সিরিজের কাছে ইউটিউবের শীর্ষস্থান হারালেন পিউডিপাই

প্রকাশিত : ২২:২২ ১ এপ্রিল ২০১৯

সুইডিশ গেমার এবং ভিডিও নির্মাতা পিউডিপাই শেষ পর্যন্ত হেরে গেছেন ভারতের টি-সিরিজের কাছে। ইউটিউবে সাবস্ক্রাইবারের দিক থেকে এখন টি-সিরিজই শীর্ষে, আর পিউডিপাই নেমে গেছেন দ্বিতীয় স্থানে। টি-সিরিজ মূলত বলিউডের ছবির ট্রেইলার, মিউজিক ভিডিও ইত্যাদি ইউটিউবে শেয়ার করে। অন্যদিকে পিউডিপাই ভিডিও গেমের ধারাবিবরণী এবং নানা ধরণের কমেডি পোস্ট করেন।

পিউডিপাই`র আসল নাম হচ্ছে ফেলিক্স শেলবের্গ। ইউটিউবে শীর্ষস্থান ধরে রাখার জন্য টি-সিরিজের সঙ্গে তার লড়াই চলছে গত কয়েক মাস ধরে।

তবে শেষ পর্যন্ত টি-সিরিজের কাছে শীর্ষ স্থান হারিয়েছেন তিনি। তবে পিউডিপাই তার প্রতিদ্বন্দ্বীকে একটি ভিডিও পোস্ট করে অভিনন্দন জানিয়েছেন।

তবে পিউডিপাই এই ভিডিওতে একথাও বলেছেন, তাকে পেছনে ফেলে ইউটিউবের শীর্ষে যেতে বলিউডের প্রতিটি গান ব্যবহার করতে হয়েছে একটা বিরাট কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানকে।

সোমবার ইউটিউবে পিউডিপাই এর তুলনায় টি-সিরিজের সাবস্ক্রাইবার ছিল সাড়ে ১৫ হাজার বেশি। উল্লেখ্য ইউটিউবে পিউডিপাই এর সাবস্ক্রাইবার হচ্ছে ৯২ মিলিয়ন, অর্থাৎ নয় কোটি বিশ লাখ।

টি-সিরিজের কাছে যেন পিউডিপাইকে শীর্ষস্থান হারাতে না হয়, সেজন্যে সম্প্রতি তার সমর্থকরা নানা ধরণের তৎপরতা চালায়। যুক্তরাষ্ট্রের সুপারবোলে তার সমর্থকরা `পিউডিপাই টি শার্ট` পরে হাজির হয়।

এর আগে কিছু সমর্থক সারা দুনিয়া জুড়ে হাজার হাজার প্রিন্টার হ্যাক করে সেখান থেকে পিউডিপাইকে সাবস্ক্রাইব করার আহ্বান জানিয়ে মেসেজ প্রিন্ট করে।

টি-সিরিজের মালিক ভুষণ কুমার অবশ্য সম্প্রতি বলেছিলেন, তিনি মনে করেন না তাদের সঙ্গে ফেলিক্স শেলবের্গ কোন প্রতিযোগিতা আছে।

"আমি এই প্রতিযোগিতা নিয়ে মোটেই মাথা ঘামাচ্ছি না। আমি বুঝতে পারছি না কেন পিউডিপাই এটাকে এত গুরুত্বের সঙ্গে নিচ্ছে।" "আমি তো আমার শিল্পীদের বলিনি ইউটিউব চ্যানেলে আমাদের সাবস্ক্রাইবার বাড়ানোর জন্য তারা এরকম বার্তা দিক? আমরা এসবের মধ্যে নেই।"

টি-সিরিজ একটি প্রোডাকশন কোম্পানি হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেন ভুষণ কুমারের বাবা ১৯৮৩ সালে। প্রথম দিকে তারা ভক্তিমূলক সঙ্গীত রেকর্ড করে তা ক্যাসেটে বিক্রির জন্য ছাড়তো। ২০১১ সালে টি-সিরিজের প্রথম ভিডিও ছাড়া হয় ইউটিউবে। অন্যদিকে মিস্টার শেলবের্গ তার পিউডিপাই চ্যানেল শুরু করেন আট বছর আগে। এক সময় তিনি পরিণত হন ইউটিউবের সবচেয়ে বেশি উপার্জনকারী তারকায়।

তবে ইউটিউবের সবচেয়ে বেশি সাবস্ক্রাইবড চ্যানেল কিন্তু এখনো ইউটিউব নিজেই। তাদের মিউজিক ভিডিও চ্যানেলের ফলোয়ার হচ্ছে ১০৫ মিলিয়ন বা ১০ কোটি ৫০ লাখের বেশি।

তথ্যসূত্র: বিবিসি।

এসএইচ/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি