ঢাকা, বুধবার   ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, || ফাল্গুন ১৪ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

নাটকীয় জয়ে ফাইনালে বাংলাদেশি মেয়েরা 

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৪:১৮ ২১ জানুয়ারি ২০২০ | আপডেট: ১৪:১৯ ২১ জানুয়ারি ২০২০

ভারতে চার দলের টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের ফাইনালে ওঠার লড়াইয়ে অপেক্ষাকৃত দুর্বল থাইল্যান্ডকে ২ উইকেটে হারিয়ে শীর্ষে থেকে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে টাইগার যুবারা। 

সোমবার বিহারের পাটনায় অনুষ্ঠিত এ ম্যাচে টস জিতে থাইল্যান্ডকে ব্যাটিংয়ে পাঠায় লাল-সবুজের দল। খুব বেশি উইকেট না ফেলতে পারলেও, রানের চাকাটা অনেকটা ভালভাবেই নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছিল সালমারা। তারপরও জয় পেতে বেশ ঘাম ঝড়াতে হয়েছে তাদের। 

ফিল্ডিংয়ে নেমে থাইল্যান্ড শিবিরে শুরুতেই আঘাত হানেন নিগার সুলতানা। তবে সে ধারাবাহিকতা আর ধরে রাখতে পারেননি তিনি। নাত্তায়া বোচাথাম বিদায় নিলেও অপর উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান নাত্তাকান সানতামের ৬০ রানের দুর্দান্ত ইনিংসের ওপর ভর করে বড় সংগ্রহের পথে এগিয়ে যায় থাইল্যান্ড। 

জাহানারা, অধিনায়ক সালমা ও নাহিদা আক্তারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে ১২০ রানে থেমে যায় দ্বীপ রাষ্ট্রটির যুবাদের ইনিংস। অন্য দুই ব্যাটসম্যান রান আউটের শিকার হন। 

সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে জবাবে শামিমা সুলতানার ৩৭ বলে ৩৮ রানের ইনিংসে ভর করে ১৬.১ ওভারে ২ উইকেটেই ৯১ রান তুলে ফেলেছিল টাইগ্রেসরা। কিন্তু শামিমা এলবিডব্লিউ হওয়ার পরই যেন বিপর্যয় নেমে আসে লাল-সবুজের দলে। 

২ উইকেটে ৯১ রান থেকে একটা সময় ৮ উইকেটে ১১২ রানে পরিণত হয় বাংলাদেশ। ১৯তম ওভারে তিনটি উইকেট হারিয়ে হারের শঙ্কায়ই পড়ে গিয়েছিল মেয়েরা।

সেখান থেকে শেষ ওভারে চার বাউন্ডারির সাহায্যে ১৩ বলে ২৮ রানের ঝড়ো ও নাটকীয় এক ইনিংস খেলে দলকে উদ্ধার করেন ফাহিমা খাতুন। এতে করে শ্বাসরুদ্ধকর এ ম্যাচ গড়ায় শেষ বল পর্যন্ত। যেখানে ২ উইকেটের জয় পায় বাংলাদেশ। 

অস্ট্রেলিয়ায় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপকে সামনে রেখে প্রস্তুতি হিসেবে এই চার দলের টুর্নামেন্ট খেলতে গেছে বাংলাদেশ। এখানে ভারতের দুটি দল-‘এ’ও ‘বি’ নামে খেলছে। ভারতীয় ‘বি’ দল উঠেছে ফাইনালে। আগামিকাল বুধবার পাটনায় তাদেরই মুখোমুখি হবে বাংলাদেশের মেয়েরা।

এআই/

New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি