ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১, || চৈত্র ২৯ ১৪২৭

বন্ধ হওয়ার উপক্রম মোংলা-ঘষিয়াখালী নৌ চ্যানেলের ড্রেজিং (ভিডিও)

বাগেরহাট প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ১১:০৫, ৪ মার্চ ২০২১

মাটি রাখার জায়গা সংকটে ব্যাহত হচ্ছে মোংলা-ঘষিয়াখালী নৌ চ্যানেলের ড্রেজিং। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, নদীর পাড় থেকে মাটি দ্রুত সরিয়ে নেয়া না হলে বন্ধ হয়ে যেতে পারে কার্যক্রম।

নাব্যতা সংকটে বন্ধ হয়ে যাওয়া ২৬ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের মোংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেলটি ২০১৪ সালের জুলাই মাসে পুনঃখনন কাজ শুরু করে বিআইডব্লিউটিএ। পরের বছর ৬ মে নৌ-যান চলাচলের জন্য চ্যানেলটি খুলে দেয়া হয়। তবে চ্যানেলের নাব্য ঠিক রাখতে অব্যাহত থাকে ড্রেজিং। 

খনন করা মাটি নদীর দুই পাড়ে ফেলার কারণে উচু স্তুপ তৈরি হয়। পাশাপাশি বালি ও কাদামাটি ঢুকে রাস্তাঘাট বন্ধ হওয়ায় বিপাকে পড়েন এলাকাবাসী। তারা জানান, এই ড্রেজারের মাটি উচু করে দিছে, এতে কাদা-জলে আমাদের সবকিছু ভেঙেচুরে সব শেষ হয়ে যায়। বৃষ্টির সময়ে বাঁধ ভেঙে সবকিছু তলিয়ে যায়।

বর্তমানে মাটি রাখার জায়গা না থাকায় ড্রেজিং কাজ ব্যাহত হচ্ছে। নৌযান চলাচল করছে জোয়ারের ওপর নির্ভর করে। সংশ্লিষ্টরা বলছেন, মাটি সরিয়ে না নেয়া হলে যে কোন সময় বন্ধ হতে পারে খনন কাজ। 

এ বিষয়ে বিআইডব্লিউটিএ, ঢাকা ড্রেজিং বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. আব্দুল মতিন বলেন, বর্তমানে খননকৃত মাটি ডাম্পিংয়ের জন্য জায়গার সংকট দেখা দিয়েছে। চ্যানেলটির নাব্যতা রক্ষা করতে হলে মাটি ফেলার জন্য স্থানীয় জনসাধারণ ও প্রশাসনের সহায়তা প্রয়োজন।

মাংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেলে ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে প্রায় ৩ কোটি ২৫ লাখ ঘন মিটার মাটি খনন করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

ভিডিওতে দেখুন- 

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি