ঢাকা, সোমবার   ০৬ জুলাই ২০২০, || আষাঢ় ২৩ ১৪২৭

Ekushey Television Ltd.

বিপিএলে দল পেলেন না যেসব তারকা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:৩৯ ১৮ নভেম্বর ২০১৯

বিপিএলে স্থানীয় খেলোয়াড়দের মধ্যে প্রথম সেঞ্চুরি করেছিলেন শাহরিয়ার নাফীস। সেঞ্চুরি রয়েছে আরেক অভিজ্ঞ মোহাম্মাদ আশরাফুলেরও। 

অথচ, এ দুই সেঞ্চুরিয়ানের কেউই আসন্ন বঙ্গবন্ধু বিপিএলে শেষ পর্যন্ত দল পেলেন না। তাদের সঙ্গে আশাহত হয়েছেন আরেক অভিজ্ঞ স্পিনার আব্দুর রাজ্জাক রাজ। তারও জায়গা হয়নি কোনও দলে। 

রোববার রাজধানীর একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত হয় বঙ্গবন্ধু বিপিএলের প্লেয়ার্স ড্রাফট। ১৮১ জন বাংলাদেশি খেলোয়াড়ের সঙ্গে ৪৩৯ জন বিদেশি খেলোয়াড় ছিল এবারের ড্রাফটে। যেখান থেকে পছন্দ অনুযায়ী খেলোয়াড় বেছে নিয়ে নিজেদের দল সাজিয়েছে অংশ নিতে যাওয়া সাতটি দল।

তবে কোনও দলই পছন্দ করেনি তাদের। এই তিন বন্ধুর সঙ্গে দল পাননি জাতীয় দলে তাদের এক সময়ের সতীর্থ নাঈম ইসলামের মতো তারকাও। যদিও রাজ্জাক ও নাফীসের জন্য এটা নতুন কোনও অভিজ্ঞতা নয়। গত মৌসুমেও তারা দল পায়নি। 

আশরাফুল গতবারের বিপিএলে দল পেয়েছিলেন। চট্টগ্রাম ভাইকিংসের হয়ে খেলতে নেমে খুব একটা সুবিধা করতে পারেননি তিনি। তাই মাত্র ৩ ম্যাচ খেলার সুযোগ হয়েছিল তার। আর এবার তো জাতীয় লিগেই দল পেতে বেশ হিমশিম খেতে হয় তাকে। 

গত বিপিএলে প্রথমে ডাক না পেলেও পরবর্তীকালে রাজশাহী কিংসের হয়ে খেলার সুযোগ হয়েছিল নাফীসের। এবারও তাকে শেষ ভরসা হিসেবে সেদিকেই তাকিয়ে থাকতে হবে। তবে প্লেয়ার্স ড্রাফটে অবহেলিত থেকে গেছেন এসব অভিজ্ঞ তারকারা। তবে শুধু যে অভিজ্ঞরা, তা নয়। এ সারিতে আছেন- বর্তমান জাতীয় দলে থাকা তরুণ পেসার ইবাদাত হোসেন ও ওপেনার সাদমান ইসলাম। 

আরও মজার ব্যাপার হলো এদিন, জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজাকেও প্রথমে কেউ দলে নেয়নি। অষ্টম রাউন্ডে এসে তাকে দলে টানে ঢাকা প্লাটুন। অথচ, বিপিএলে সবচেয়ে সফল খেলোয়াড় এ টাইগার ক্যাপ্টেন। 

শেষ দিকে তিনি ডাক পাওয়ায় অনেকেই আশা করেছিলেন হয়তো আশরাফুলেরও এমনিভাবে ভাগ্য খুলে যাবে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তার প্রতি আগ্রহ দেখায়নি কোনও দল। 

একসময় টি-টোয়েন্টি স্পেশালিস্টের তকমা পাওয়া জিয়াউর রহমান, সাকলাইন সজীবেরও প্রতি আগ্রহ দেখা যায়নি কোনও দলের। বিপিএলের তৃতীয় আসরে নজর কাড়া মেহিদী মারুফও অবহেলিত থেকেছেন আসন্ন আসরে। 

তাদের মতো মোশারফ হোসেন রুবেল, মার্শাল আইয়ুব, ধীমান ঘোষ, তানবির হায়দার, আল-আমিন জুনিয়র, শুভাশিস রায়, মাহমুদুল হাসান লিমন, জুবায়ের হোসেন লিখন, শাহাদাত হোসেন রাজীবের মতো খেলোয়াড়কেও ড্রাফট থেকে নেয়নি কোনও দল।

বিপিএলের আগের ছয় আসর হয়েছে ফ্র্যাঞ্চাইজিভিত্তিক। তবে এবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় আয়োজন করতে যাচ্ছে বিপিএল। বিশেষ এই বিপিএল হবে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নামে।

১১ ডিসেম্বর শুরু হবে বিপিএলের এবারের আসর। উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে ৮ ডিসেম্বর।

এআই/


New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি