ঢাকা, শুক্রবার   ২৪ জানুয়ারি ২০২০, || মাঘ ১১ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

ভারত আর্মির প্রতারণার শিকার সাকিব!

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৯:২০ ৬ ডিসেম্বর ২০১৯

ভারত আর্মি ও সাকিব আল হাসান

ভারত আর্মি ও সাকিব আল হাসান

তিন তিনবার ম্যাচ ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে না জানানোয় ক্রিকেট থেকে ১ বছরের নিষেধাজ্ঞা কাটাচ্ছেন সাকিব আল হাসান। যে কারণে বিশ্বসেরা এ অলরাউন্ডারকে র‌্যাঙ্কিংয়ের তিন ফরম্যাট থেকেই বাদ দিয়েছে আইসিসি। কিন্তু সাকিবের অর্জনগুলো কি আর মুছে দেয়া সম্ভব!

সম্ভব না বলেই ইংল্যান্ড বিশ্বকাপের ঈর্ষণীয় পারফরম্যান্সের সুবাদে ভারত আর্মির আন্তর্জাতিক বর্ষসেরা পুরুষ খেলোয়াড় ক্যাটাগরিতে মনোনয়নও পান সাকিব।

গত বিশ্বকাপে ব্যাটিং বোলিং ফিল্ডিং- সব বিভাগেই দুর্দান্ত পারফর্ম করেন টাইগার তারকা সাকিব আল হাসান। চোখ ধাঁধানো পারফরম্যান্স দিয়ে গোটা ক্রিকেট বিশ্বের সামনে নিজের শ্রেষ্ঠত্বের প্রমাণ দেন তিনি। আইসিসি আয়োজিত ক্রিকেটের বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে ৮ ম্যাচ খেলে ২ সেঞ্চুরি ও ৫ হাফসেঞ্চুরিতে সর্বমোট ৬০৬ রান করেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার।

বল হাতেও কম ভেলকি দেখাননি সাকিব। সর্বসাকুল্যে শিকার করেন ১১ উইকেট। বিশ্বকাপের ঠিক পরে জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন করায় এক বছরের জন্য সবধরনের ক্রিকেটে তাকে নিষিদ্ধ করে আইসিসি।  

এদিকে, সমর্থকদের ভোটে প্রতি বছর বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দিয়ে আসছে ভারত আর্মি। তেমনি বর্ষসেরা নির্বাচনের জন্য সোশ্যাল মিডিয়া টুইটারে পোলের (ভোট) আয়োজন করে ভারতীয় ক্রিকেটের সমর্থকদের বৃহত্তম গোষ্ঠীটি। সেখানে সাকিবের সঙ্গে জায়গা পান ইংল্যান্ডকে বিশ্বকাপ জেতানো অলরাউন্ডার বেন স্টোকস, অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়ার হয়ে দুর্দান্ত পারফরম করা স্টিভ স্মিথ এবং সর্বশেষ বিশ্বকাপের সেরা ক্রিকেটার নিউজিল্যান্ডের কেন উইলিয়ামসন।

গত বৃহস্পতিবার (৫ ডিসেম্বর) পোল পোস্টের মাধ্যমে নির্বাচিত বিজয়ীর নাম প্রকাশ করে ভারত আর্মি। বিজয়ী হিসেবে স্টোকসের নাম ঘোষণা করে তারা। অথচ গত ০২ ডিসেম্বর শেষ হওয়া পোলে সবচেয়ে বেশি ভোট পেয়েছেন সাকিব। 

পোল শেষে বাংলাদেশি ক্রিকেটার একাই পেয়েছেন ৮২ শতাংশ ভোট। দ্বিতীয় স্থানে থাকা স্টোকস পান মাত্র ৮% ভোট। এছাড়া কেন উইলিয়ামসন ৬% এবং স্টিভ স্মিথ ৪ % ভোট পেয়েছেন! তবুও সাকিবকে বাদ দিয়ে স্টোকসকেই বিজয়ী ঘোষণা দেয় গোষ্ঠীটি।

ভারত আর্মির এমন সিদ্ধান্তে রীতিমত চটেছেন ক্রিকেটভক্তরা। অনেকে এটাকে ইতিহাসের জঘন্যতম প্রতারণা হিসেবে অভিহিত করছেন। ক্ষুব্ধ সমর্থকরা রীতিমতো তোপ দাগছেন গোষ্ঠীটির ওপর। তাদের প্রশ্ন- ভারত আর্মিই যদি সেরা খেলোয়াড় নির্বাচন করবে, তাহলে পোলের নামে এই তামাশা করার কী দরকার ছিল?

অবশ্য ভারতীয় ক্রিকেট সমর্থকদের সবচেয়ে বড় গ্রুপটির দাবি, তারা এবারের আন্তর্জাতিক 'প্লেয়ার অব দ্য ইয়ার' পুরস্কারটি দিয়েছে ৪টি বিষয়কে মূল্যায়ন করে। সেগুলো হলো- দলের জয়ে প্রভাব, পারফরমেন্সের ধারাবাহিকতা, খেলোয়াড়সুলভ আচরণ এবং সমর্থকদের ভোট বা জনপ্রিয়তা।

এনএস/

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি