ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৪ নভেম্বর ২০১৯, || কার্তিক ৩০ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

যে কারণে ফেডেরারের সঙ্গে দেখা করলেন না জোকোভিচ

প্রকাশিত : ১০:১১ ১২ মার্চ ২০১৯ | আপডেট: ১০:১৬ ১২ মার্চ ২০১৯

এটিপি এক্সিকিউটিভ চেয়ারম্যান এবং প্রেসিডেন্ট ক্রিস কারমোডের অপসারণ নিয়ে দু’ভাগ টেনিস দুনিয়া। আরও ভাল করে বললে, পুরুষদের টেনিস। যার একদিকে আছেন রজার ফেডেরার, রাফায়েল নাদালের মতো মহাতারকা। অন্যদিকে, প্লেয়ার্স কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট এবং বিশ্বের এক নম্বর নোভাক জোকোভিচ।

অবস্থা এতটাই অগ্নিগর্ভ যে, এ ব্যাপারে কথা বলতে রজার ফেডেরার দেখা করতে চেয়েছিলেন নোভাক জোকোভিচের সঙ্গে। কিন্তু জোকোভিচ তার সঙ্গে দেখা করেননি। যা ফেডেরার নিজেই স্বীকার করেছেন। গত সপ্তাহে এটিপি প্রেসিডেন্টকে ভোটাভুটিতে সরে যেতে বাধ্য করা হয়। ২০১৪ থেকে তিনি প্রেসিডেন্ট ছিলেন। কারমোডের আমলেই পুরুষদের টেনিসে আরও রমরমা দেখেছে বিশ্ব। ব্যবসায়িক উন্নতির সঙ্গে রেকর্ড পুরস্কার মূল্যও দেখা গেছে বিভিন্ন প্রতিযোগিতা এবং গ্র্যান্ড স্ল্যামে। তাই ফেডেরার, নাদালরা তার অপসারণের বিপক্ষে ছিলেন। কিন্তু জোকোভিচের নেতৃত্বেই সরানো হয় কারমোডেকে।

ভোটাভুটির আগেই ফেডেরার পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে গিয়েছিলেন নোভাকের সঙ্গে। কিন্তু ‘সময় নেই’ বলে এড়িয়ে গেছেন সার্বিয়ান তারকা। ‘ভোটাভুটির আগে চেষ্টা করেছিলাম নোভাকের সঙ্গে দেখা করার। দুর্ভাগ্যবশত ওর সময় নেই। ব্যাপারটা আমার বোধগম্য হয়নি। তবে ঠিক আছে। নিশ্চয়ই ওর এ ব্যাপারে অনেক কিছু করার রয়েছে, ’বলেছেন সুইস মহাতারকা। যিনি নিজেও প্লেয়ার্স কাউন্সিলের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট। এখানেই থামেননি, ফে়ডেরার আরও বলেছেন, ‘আমি নোভাককে জিজ্ঞেস করেছিলাম, আমার সঙ্গে দেখা করার সময় হবে কি না। ও তখন বলল, পরের দিন দেখা করবে। কিন্তু ততক্ষণে তো সব সিদ্ধান্ত নেওয়াই হয়ে যাবে। আমি এখনও ওর সঙ্গে দেখা করতে পারিনি।’

ফেডেরার এর পরে ব্যাখ্যাও দিয়েছেন, কেন তিনি কারমোডের প্রেসিডেন্ট পদে থাকার পক্ষে। ২০ গ্র্যান্ড স্ল্যামের মালিক বলেছেন, ‘আমি জানতে চাই কেন কারমোডেকে সরানো হল। এর পরে কী করতে চাইছে ওরা। কারমোডে এমন কী করতে পারেনি, যার জন্য ওকে সরে যেতে হল।’ টেনিসের স্বার্থে এ ব্যাপারে আরও গভীরে যেতে চাওয়ার ইচ্ছা জানান ফেডেরার। তবে তার জন্য তিনি কোনও রাজনীতিতে থাকতে চান না।

এ ব্যাপারে রাফায়েল নাদালও যে তার সঙ্গে এক মত তাও জানিয়ে দিয়েছেন সুইস কিংবদন্তী। ‘সব সময় এ সব নিয়ে চিন্তা করলেও হবে না, দূরে সরে গেলেও হবে না। আমি রাফার সঙ্গেও এ নিয়ে কথা বলেছি। আমাদের দু’জনেরই মত এক। তা ছাড়া ব্যাপারটা আমার আর ওর দু’জনের জন্যই গুরুত্বপূর্ণ। আমি কয়েকটা প্রশ্নের উত্তর চাই। যা হয়েছে তার সব উত্তর আমার কাছে পরিষ্কার নয়। প্লেয়ার্স কাউন্সিলের সঙ্গে আমায় কথা বলতে হবে,’ বলেন রজার।

এটিপি টুরের ভবিষ্যত নিয়েও চিন্তার কথা বলতে ভোলেননি ফেড এক্সপ্রেস। ‘এটা জানা তো খুব জরুরি যে টুর কোন দিকে যাচ্ছে। কীভাবে এর পরে টুর এগোবে। কে এগিয়ে নিয়ে যাবে। অনেক প্রশ্নেরই উত্তর নেই। যদি উত্তরগুলো পেয়ে যাই, তাহলে আমার মন শান্ত হবে। শুধু আমার জন্যই নয়, অনেক খেলোয়াড়ের ক্ষেত্রেও তাই। অনেক খেলোয়াড়ই কারমোডেকে সমর্থন করছে।’

সূত্র: আনন্দবাজার

একে//

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি