ঢাকা, সোমবার   ২২ জুলাই ২০১৯, || শ্রাবণ ৮ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

‘রোনালদোর মহানুভবতা দেখে আমরা মুগ্ধ’

প্রকাশিত : ১৫:০৩ ১৪ মে ২০১৯

সেরি আ যথারীতি রোনালদোময়। গতকাল সোমবার জুভেন্টাস তাদের টুইটারে একটি ছবি পোস্ট করেছে। দুই মিষ্টি, খুদে ভক্তের সঙ্গে দাঁড়িয়ে রয়েছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনলদো।

ব্রিস্টলে থাকে দশ বছরের শিশু জোসেফ। শিশুটির ব্রেন টিউমার ধরা পড়ে ২০১৩ সালে। তবে মস্তিষ্কে অস্ত্রোপচারের পরে জোসেফ আপাতত ঠিক রয়েছে। সেই খবর রোনালদোর কানে পৌঁছাতেই জুভেন্টাস তারকা তাকে ডেকে পাঠান ইতালিতে।

সি আর সেভেনই বিমানে আসার ব্যবস্থা করে দেন জোসেফ ও তার পরিবারের। আর সোমবার সকালে জুভেন্টাস ট্রেনিং গ্রাউন্ডে জোসেফের সঙ্গে দেখা করেন পর্তুগিজ তারকা। তার হাতে তুলে দেন ক্লাবের জার্সি এবং তোলেন ছবি।

জোসেফের মা কেলি বলেন, গোটা ব্যাপারটা অকল্পনীয়। রোনালদোর মতো ব্যক্তিত্ব যে আমার ছেলের সঙ্গে দেখা করবেন, তা আমরা কল্পনাই করতে পারিনি। আমরা রোনালদোর মহানুভবতা দেখে মুগ্ধ।

এ দিকে, ইতালির সংবাদমাধ্যম রোনালদোর সেই স্নেহশীল ছবি নিয়ে আদৌ প্রভাবিত হচ্ছে না। বরং তাদের কাছে অনেক বেশি আলোচ্য হয়ে দাঁড়িয়েছে রোববার সেরি আ’তে এএস রোমার বিরুদ্ধে জুভেন্টাসের হার নিয়ে। এবং সেখানেও বিতর্কের কেন্দ্রে সেই রোনালদো। ওই ম্যাচে মাথা গরম  করে পর্তুগিজ তারকা বাগ্‌যুদ্ধে জড়িয়ে পড়েন রোমা দলের ডিফেন্ডার আলেসান্দ্রো ফ্লোরেঞ্জির সঙ্গে।

শুধু তাই নয়, ক্ষিপ্ত জুভেন্টাস তারকা বলে ওঠেন, তুমি আমার চেয়ে উচ্চতায় এতটাই খাটো যে, তোমার সঙ্গে কথা বলতে চাই না আমি। রোনালদোর সেই মন্তব্য নিয়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক। টুইটারে অনেকেই বলতে শুরু করেছেন, মেজাজ হারালেও রোনালদোর এ ধরনের মন্তব্য মোটেও কাঙ্ক্ষিত ছিল না। অবশ্য ম্যাচের পরে রোনালদোর আচরণ নিয়ে কোনও ব্যাখ্যায় যেতে চাননি জুভেন্টাস কোচ মাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রি। তিনি বলছেন, ম্যাচে সবাই কমবেশি মেজাজ হারিয়ে ফেলে। তাকে খুব বড় করে দেখার দরকার আছে বলে আমি মনে করি না।

এছাড়া, ইতালি সংবাদমাধ্যমের খবর, মৌসুম শেষ হলেই জুভেন্টাস ছেড়ে দিতে পারেন অ্যালেগ্রি। যদিও তিনি রোববার সাংবাদিক সম্মেলনে সেই সম্ভাবনা খারিজ করে দেন।

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি