ঢাকা, শনিবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২০, || মাঘ ৫ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

শান্তর ব্যাটে খুলনার চ্যালেঞ্জিং স্কোর 

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২০:৪৩ ১৩ জানুয়ারি ২০২০

নাজমুল হোসাইন শান্ত

নাজমুল হোসাইন শান্ত

দেখতে দেখতে শুরু হয়ে গেছে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের বিদায়ক্ষণ। লিগ পর্ব শেষে কোয়ালিফায়ার-১ এর ম্যাচে আজ মুখোমুখি খুলনা টাইগার্স ও রাজশাহী রয়্যালস। যে ম্যাচে আগে ব্যাট করে নাজমুল হোসেন শান্তর অনবদ্য ব্যাটিংয়ে ১৫৮ রানের চ্যালেঞ্জিং স্কোর দাঁর করেছে খুলনা।

সোমবার মিরপুরের শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস জিতে খুলনাকে আগে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রণ জানান রাজশাহীর অধিনায়ক আন্দ্রে রাসেল। পরে খুলনার হয়ে ইনিংস শুরু করতে আসেন দুই ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসাইন শান্ত ও মেহেদী হাসান মিরাজ।
    
তবে এদিন একেবারেই সুবিধা করতে পারেননি মিরাজ। মোহাম্মদ ইরফানের বলে আউট হওয়ার আগে করেন ৮ বলে সমান ৮ রান। ওই ওভারেই দ্বিতীয় আঘাত হানেন ইরফান। এবার তার শিকার হন রানের খাতা খুলতে না পারা রাইলি রুশো। ফলে দলীয় ১৫ রানে ২ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে টাইগাররা।

সেখান থেকে শামসুর রহমানকে নিয়ে দলের হাল ধরেন শান্ত। তবে বলের সাথে পাল্লা দিয়ে রান তোলা শামসুর রবি বোপারার শিকার হয়ে ফেরেন ৩১ বলে ৩২ রান করে। এতেই ভাঙে তৃতীয় উইকেটে দুজনের ৭৮ রানের মূল্যবান জুটি।

এর আগেই অবশ্য শোয়েব মালিকের করা ইনিংসের ষষ্ঠ ওভারের দ্বিতীয় বলে আউট হয়ে যান আগের ম্যাচে শতক হাঁকানো শান্ত। পরে টিভি আম্পায়ারের ডাকা নো-বলের কল্যাণে ৯ রানে জীবন ফিরে পান তিনি। ফিরে পাওয়া জীবনটাকে বেশ ভালোভাবেই কাজে লাগান এই বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। চলতি টুর্ণামেন্টে বাংলাদেশের একমাত্র সেঞ্চুরিয়ান এদিন মাত্র ৩৬ বলে তুলে নেন ফিফটি।

এরপর আবার ৫৭ রানের সময় শান্তর সহজ ক্যাচ হাত গলিয়ে বের করে দেন আফিফ হোসাইন। এসময় শান্তর সঙ্গে যোগ দেয়া অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম চোট পেয়ে মাঠ ছাড়লে ফিকে হয়ে যায় খুলনার বড় স্কোরের আশা। ১৬ বলে ২১ রান করেন মুশফিক। 

তবে শেষ ওভারে ঝড় তুলে ২২ রান নেন নজিবুল্লাহ ও শান্ত। শেষপর্যন্ত ৭টি চার ও ৪টি ছয়ের সাহায্যে শান্তর ৫৭ বলে ৭৮ রানের কল্যাণে নির্ধারিত ওভার শেষে ১৫৮ রানের সংগ্রহ দাঁড় করে খুলনা টাইগার্স।

এনএস/

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি