ঢাকা, শনিবার   ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২০, || ফাল্গুন ১০ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

শুরুতেই পাক শিবিরে শফিউলের হানা

নাজমুশ শাহাদাৎ

প্রকাশিত : ১৭:০৯ ২৪ জানুয়ারি ২০২০ | আপডেট: ১৭:৩১ ২৪ জানুয়ারি ২০২০

শফিউল ইসলাম

শফিউল ইসলাম

লাহোরে পাকিস্তানের বিপক্ষে প্রথম টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ব্যাটিং ব্যর্থতায় সাদামাটা সংগ্রহ পেয়েছে বাংলাদেশ। যে লক্ষ্যে ব্যাট করতে নামা পাক শিবিরে শুরুতেই হানা দিয়েছেন শফিউল ইসলাম। যাতে শূন্য রানেই তুলে নিয়েছেন স্বাগতিক অধিনায়ককে।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৩ ওভারে পাকিস্তানের সংগ্রহ ১ উইকেটে ২০ রান। দলে ফেরা মোহাম্মদ হাফিজ ১৪ রানে এবং অভিষিক্ত আহসান আলি ৪ রানে ক্রিজে আছেন।

এর আগে বাংলাদেশের কোনও ব্যাটসম্যানের উইলো থেকে দেখা যায়নি ঝড়ো ইনিংস। কেউ খেলেছেন টেস্ট, কেউবা খেলেছেন ওয়ানডে স্টাইলে। এমন ম্যাড়ম্যাড়ে ব্যাটিংয়ে নির্ধারিত ২০ ওভারে বাংলাদেশের সংগ্রহ দাঁড়িয়েছে ৫ উইকেটে ১৪১ রান। ৪১ বলে সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেছেন ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম।

বাংলাদেশের দলের ওপর আজ যেন ভর করেছে রান-আউটের ভুত! যাতে একে একে সাজঘরে ফেরেন তামিম ইকবাল ও লিটন দাস। আর এই জোড়া ধাক্কা কাটিয়ে বড় স্কোর গড়তে পারেনি টাইগাররা। পাকিস্তানের বিপক্ষে ওই রান তুলতে পেরেছে।

শুক্রবার লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা বাংলাদেশ ইনিংস শুরু করে বেশ ধীর গতিতেই। টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচ হলেও মারমার কাটকাট ব্যাটিংয়ের কোনও দেখা নেই। দর্শকরা মাঝেমধ্যে চিৎকার করে আসর জমানোর চেষ্টা করলেও শুরু থেকেই ধীর ব্যাটিং করছিলেন তামিম ইকবাল। 

তরুণ মোহাম্মদ নাঈম শুরুতে হাত খুললেও সময়ের সঙ্গে ধীরগতির ব্যাটিং শুরু করেন তিনিও। যদিও ওপেনিং জুটিতে এসেছে মূল্যবান ৭১ রান, তথাপি এতে সময় লেগেছে ১১ ওভার! মোহাম্মদ রিজওয়ানের থ্রোতে উইকেট ভাঙলে সাজঘরে ফেরেন ৩৪ বলে ৩৯ করা তামিম ইকবাল।

তামিম ইকবালের বিদায়ের পর নাঈমের সঙ্গী হন দুর্দান্ত ফর্মে থাকা লিটন দাস। কিন্তু ১৩ বলে ২ বাউন্ডারিতে ১২ রান করা লিটনও প্যাভিলিয়নে ফেরেন সেই রান আউটেই! এসময় উইকেটে আসেন অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। 

আর তখনই শাদাব খানকে ছক্কা মারতে গিয়ে ইফতেখারের তালুবন্দি হয়ে ফেরেন ৪১ বলে ৩ চার ও ২ ছক্কায় ৪৩ রান করা নাঈম শেখ। যাতে ৯৮ রানে তৃতীয় উইকেট হারায় বাংলাদেশ। এরপরও ছিল বড় রানের আশা।

কিন্তু দুই অলরাউন্ডার আফিফ (৯) ও সৌম্য (৭) দ্রুত আউট হলে ভেস্তে যায় টাইগারদের বড় স্কোরের সেই আশা। শেষ পর্যন্ত মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও মোহাম্মদ মিঠুনের ব্যাটে ১৪১ রান তুলতে সমর্থ হয় বাংলাদেশ। যেখানে অধিনায়ক ১৪ বলে ১৯ করে এবং মিঠুন তিন বলে পাঁচ করে অপরাজিত থাকেন।

স্বাগতিকদের হয়ে শাহীন আফ্রিদি, শাদাব খান ও অভিষিক্ত হারিস রউফ একটি করে উইকেট লাভ করেন। 

এদিকে, পাকিস্তানের বিপক্ষে এই প্রথমবার তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলছে টাইগাররা। সবশেষ সিরিজে জিততে না পারলেও ভারতকে তাদেরই মাটিতে কাঁপিয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ। অন্যদিকে, আইসিসি টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থান ধরে রাখলেও সময়টা ভালো যাচ্ছে না পাকিস্তানের। ফল হওয়া সবশেষ ৯ ম্যাচের আটটিতেই হেরেছে তারা।

ভারতের বিপক্ষে খেলা সবশেষ ম্যাচের একাদশে খুব একটা পরিবর্তন আনেনি বাংলাদেশ। তিন পেসার মোস্তাফিজুর রহমান, আল আমিন হোসেন ও শফিউল ইসলামের সঙ্গে আছেন লেগ স্পিনার আমিনুল ইসলাম বিপ্লব। 

এনএস/

New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি