ঢাকা, বুধবার   ২৩ অক্টোবর ২০১৯, || কার্তিক ৮ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

শ্রীলঙ্কাকে অনায়াসে হারালো টাইগাররা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৮:৩৪ ২৩ জুলাই ২০১৯ | আপডেট: ১৮:৫৯ ২৩ জুলাই ২০১৯

মোহাম্মদ মিঠুনের অনবদ্য ব্যাটিংয়ে ভর করে শ্রীলঙ্কাকে পাঁচ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কার দেয়া ২৮৩ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করে ১১ বল বাকি থাকতেই জয়ের বন্দরে পৌঁছে টাইগাররা। লঙ্কানদের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচের এ জয় মূল সিরিজে ভালো ফল বয়ে আনতে করতে সাহায্য করবে তামিম-মুশফিকদের।  

করতে নেমে লাহিরু কুমারার তোপের মুখে পড়ে বাংলাদেশ। দলীয় ৫৮ রানে সৌম্য-তামিমকে হারিয়ে কিছুটা চাপে পড়লেও মুশফিক-মিঠুন জুটিতে জয়ের ভিত পায় টাইগাররা। ফিফটি তুলে মুশি সাজঘরে ফিরলেও মিঠুনের ব্যাটে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যে পৌঁছে যায় সাব্বির-মোসাদ্দেকরা।

এদিন তিনে ব্যাট করতে নেমে সাকিবের অভাবটা বেশ ভালোভাবেই পূরণ করেন মোহাম্মদ মিঠুন। যদিও মাত্র ৯ রানের জন্য সেঞ্চুরি বঞ্চিত হন তরুণ এ ডানহাতি ব্যাটসম্যান। সাজঘরে ফেরার আগে ১০০ বলে এগারটি চার ও একটি বিশাল ছক্কায় ৯১ রানের ম্যাচজয়ী এক অনবদ্য ইনিংস খেলেন মিঠুন।

৪৬তম ওভারে মিঠুন যখন ফেরেন, তখন জয় থেকে মাত্র ২১ রান দূরে দল। যে দূরত্ব কমিয়ে জয়ের বন্দরে পৌঁছতে একটুও বেগ পেতে হয়নি সাব্বির ও মোসাদ্দেকের দায়িত্বশীল ব্যাটে। অনায়াসেই টপকে যায় ১১ বল বাকি থাকতেই। 

সাব্বির ২৬ বলে ৩১ এবং মোসাদ্দেক ১০ বলে ১৫ রান করে অপরাজিত থাকেন। ফলে পাঁচ উইকেটের লড়াকু জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে তামিম বাহিনী। 

এর আগে দলীয় ৪৫ রানেই দুই চারে মাত্র ১৩ রানে আউট হন সৌম্য। এরপর ভালো খেলতে থাকা অধিনায়ক তামিম ইকবাল আউট হয়েছেন ৩৭ রান করে। ৪৭ বল খেলে ছয়টি চারে ওই রান করেন তিনি।

দলীয় ৫৮ রানে দুই ওপেনার ফিরলেও তিনে নামা মিঠুনকে নিয়ে জুটি গড়ে দলকে জয়ের ভিত পাইয়ে দেন মি. ডিপেন্ডেবল মুশফিকুর রহিম। ফেরার আগে ৪৬ বল থেকে ছয়টি চার ও এক ছক্কায় ঠিক পঞ্চাশ রান করেন তিনি। পরে মুশফিকের দেখানো পথে হেঁটেই ফিফটি তুলে নিয়েছেন তিন নম্বরে ব্যাটিংয়ে নামা মোহাম্মদ মিঠুন। 

তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের আগে আজ মঙ্গলবার শ্রীলংকা বোর্ড প্রেসিডেন্ট একাদশের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচ খেলছে বাংলাদেশ। কলম্বোর পি সারা ওভালে ম্যাচটি শুরু হয় বাংলাদেশ সময় বেলা পৌনে ১১টায়।

প্রস্তুতিমূলক এ ম্যাচে টস জিতে ব্যাটিং করে টাইগার বোলারদের তোপের মুখে পড়ে মাত্র ৩২ রানেই তিন উইকেট হারিয়ে বসে শ্রীলঙ্কা বোর্ড একাদশ। পরে দাসুন শানাকা ও শেহান জয়াসুরিয়ার ফিফটিতে ২৮২ রানের সংগ্রহ গড়ে ডিকওয়েলার দল। 

দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৮৬ রান করে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন শানাকা। ৬৩ বলে সমান ছয়টি করে ছয় ও চারে ঝোড়ো ওই ইনিংস খেলন তিনি। এছাড়া জয়াসুরিয়ার ৫৬, ভানুকা রাজাপাকশের ৩২, হাসারাঙ্গা ডি সিলভার ২৮ ও গুনাথিলাকার ২৬ রান ছিলো উল্লেখযোগ্য। 

টাইগার বোলারদের মধ্যে রুবেল হোসাইন ও সৌম্য সরকার ২টি করে এবং তাসকিন আহমেদ, মুস্তাফিজ, ও ফরহাদ রেজা একটি করে উইকেট লাভ করেন। সবাই বেশ ভালো বলই করেন। তবে মিরাজ ৪ ওভার, রিয়াদ ৩ ওভার এবং তাইজুল ৬ ওভার করে বল করেও থাকেন উইকেট শূন্য।
 
এদিকে শ্রীলংকা সফরে শেষ মুহুর্তে ইনজুরির কারণে নিয়মিত অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা দলের সঙ্গে যেতে না পারায় টাইগারদের নেতৃত্ব দিচ্ছেন দেশ সেরা ওপেনার তামিম ইকবাল।

সাকিব-মাশরাফি না থাকলেও দলে যারা আছেন তাদের ওপরই ভরসা রাখছেন ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক। বাংলাদেশ ‘এ’ দলের হয়ে খেলায় ব্যস্ত থাকায় গতকাল সোমবার শেষ চার সদস্য হিসেবে দলের সঙ্গে যোগ দিয়েছেন সাব্বির, বিজয়, মিঠুন ও ফরহাদ রেজা। বিশ্বকাপের ব্যর্থতা ভুলে শ্রীলংকা সফর দিয়ে নতুন করে শুরু করতে চায় টাইগাররা।

এনএস/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি