ঢাকা, ২০১৯-০৪-২৩ ২০:২৯:৩৭, মঙ্গলবার

Ekushey Television Ltd.

সেমিতে ভারতের সামনে আন্ডারডগ বাংলাদেশ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১১:২৯ এএম, ২০ মার্চ ২০১৯ বুধবার

একাধিক সাফল্য রয়েছে বাংলাদেশ দলের। কিন্তু ভারতের মূল দলের বিপক্ষে কখনোই জয় পায়নি বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল। সেই শঙ্কা থেকেই সাফের সবচেয়ে সফল দলটাকে এড়াতে চেয়েছিল গোলাম রব্বানী ছোটনের দল। কিন্তু স্বাগতিক নেপালের কাছে অসহায় আত্মসমর্পণের পর সেমিফাইনালে ভারতের সামনে বাংলাদেশ।

আজ বুধবার নেপালের বিরাটনগরে শহীদ রঙ্গশালা প্রস্তুত দুটি সেমিফাইনালের জন্য। স্বাগতিক নেপাল বনাম শ্রীলঙ্কার প্রথম সেমিফাইনাল সকালে। আর এরপর বিকেল সোয়া ৩টায় শুরু হবে বাংলাদেশ-ভারতের সেমিফাইনাল ম্যাচ।

ভারতকে এড়াতে গত শনিবারের নেপাল ম্যাচই ছিল সাবিনা খাতুনদের ভরসা। স্বাগতিক নেপালের কাছে ৩-০ গোলে হেরে গ্রুপ ‘এ’তে রানার্সআপ হয়েছে বাংলাদেশ। সেমিতে খেলতে হচ্ছে গ্রুপ ‘বি’র সেরা দলের বিপক্ষে।

এ ম্যাচ সব সময় কঠিন বাংলাদেশের জন্য। ভারতীয় সিনিয়র দলকে হারানোর কোনও সুখস্মৃতি যে তাদের নেই। নেই অনুপ্রাণিত হওয়ার কোনও অতীত। ৯ ম্যাচে বাংলাদেশের আট হারের পাশে আছে মাত্র একটি ড্র। টানা চারবার চ্যাম্পিয়ন হয়ে সাফ মহিলা ফুটবলের আকাশে চাঁদ হয়ে থাকা ভারতের জন্য এই ড্র যেন একটুখানি কলঙ্ক। এই টুর্নামেন্টে বাকি সবই তাদের জয়ের ইতিহাস। তাদের এই আগাগোড়া আধিপত্যের ইতিহাস ফুঁড়ে বাংলাদেশকে ফাইনালে পৌঁছতে হলে গড়তে হবে নতুন ইতিহাস।

কিন্তু স্বপ্ন না থাকলে ভয়কে জয় করে সামনে এগোনো যাবে না। সেই নেপাল ম্যাচের ট্রমা থেকে বের করে মেয়েদের নতুন লড়াইয়ের জন্য তৈরি করা যাবে না। তাই বাংলাদেশ কোচ স্বপ্ন দেখেন, আন্ডারডগ হয়ে খেলার। বলেন, বাংলাদেশ সেমিফাইনালে খেলবে আন্ডারডগ হয়ে। আর আন্ডারডগের ম্যাচ জেতার ইতিহাস আছে ভুরি ভুরি।

এমন পরিস্থিতিতে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ সেমিফাইনালে নামবে আন্ডারডগ হয়ে। টিম ম্যানেজমেন্ট ছড়িয়ে দিচ্ছে এই বার্তা। কারণ ভারত জয়ের প্রতিজ্ঞা মনিকা-স্বপ্নাদের মনে থাকলেও মুখে নেই। মুখে বললে হয়তো চাপ হবে বেশি। তাই চাপহীন থাকার সোজাসাপ্টা পথ হলো আন্ডারডগ হয়ে মাঠে নামা।

বাংলাদেশ কোচ গোলাম রব্বানী ছোটন বলছেন, সর্বোচ্চ দিয়ে ম্যাচ জয়ের কথা। মাঠে যারা সর্বোচ্চ দেবে, সেই মেয়েরা বলছে জোর লড়াইয়ের কথা।

একে//

ফটো গ্যালারি



© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি