ঢাকা, বুধবার   ১৩ নভেম্বর ২০১৯, || কার্তিক ২৯ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

হ্যালো লিডারে এবার কেরাণীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২১:৩৯ ৫ অক্টোবর ২০১৯ | আপডেট: ২১:৪০ ৫ অক্টোবর ২০১৯

জনপ্রতিনিধির সঙ্গে স্থানীয় ভোটার আর জনগণের সেতুবন্ধন গড়ে তুলতে একুশে টেলিভিশনে শুরু হয়েছে জবাবদিহিতামূলক অনুষ্ঠান হ্যালো লিডার। ভোটের আগে নেতারা যে রঙ্গিন প্রতিশ্রুতি দেন তা বাস্তবায়নে সহায়কশক্তি হিসেবে কাজ করতেই দেশের প্রথম টেরিস্ট্রিযাল টিভি একুশের এই উদ্যোগ।  

কারণ ভোটে জেতার পরই নেতার চারপাশে গড়ে উঠে শক্তিশালী এক দেয়াল। অন্ধকার সেই দেয়াল ভাঙতেই ড. অখিল পোদ্দার বিনির্মাণ করেছেন হ্যালো লিডার। এবারের পর্বে লিডারের আসনে আছেন দেশের বৃহত্তম উপজেলা কেরাণীগঞ্জের চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদ। পর পর তিনবার নির্বাচিত হয়েছেন শাহীন আহমেদ।  গুরুত্বপূর্ণ এই উপজেলাটিতে রয়েছে দুটি সংসদীয় আসন। যেখানে পর-পর তিন বার নির্বাচিত সরকারের বিদ্যুত ও জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হাামিদ বিপুর সংসদীয় আসন। অপর পাশে আছেন সাবেক খাদ্যমন্ত্রী ও আইন প্রতিমন্ত্রী এডভোকেট কামরুল ইসলাম। তাছাড়া ঢাকার সঙ্গে লাগোয়া উপজেলাটি শিল্প ও কৃষিঅর্থনীতির কারণে অতিব গুরুত্বপূর্ণ। 

অনুষ্ঠান উপস্থাপক ড. অখিল পোদ্দার জানান, এটি হ্যালো লিডারের চতুর্থ এপিসোড। লিডারের সঙ্গে অতিথি আছেন কেরাণীগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি এডভোকেট নিপুণ রায়চৌধুরী, স্থানীয় শাক্তা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন লিটন ও কলাতিয়ার জ্যেষ্ঠ অধিবাসী সোলায়মান ভূঁইয়া । অনুষ্ঠান প্রযোজনা করেছেন হাসান শহিদ ফেরদৌস। 

রোববার রাত ১০টায় অনুষ্ঠিত হবে হ্যালো লিডারের চতুর্থ পর্বটি। রাত ২টায় ও পরদিন সোমবার সকাল ৭টায় পুণ:প্রচার হবে ঘন্টাব্যপী হ্যালো লিডার। অনুষ্ঠানটির সঞ্চালক একুশে টেলিভিশনের হেড অফ ইনপুট ড. অখিল পোদ্দারের আশা, অনুষ্ঠানটি নানান কারণেই দর্শকের কাছে ভালো লাগবে। কারণ বিষয়বৈচিত্র্যে ভরপুর ও তথ্যবহুল এ ধরণের টক শো টেলিভিশনগুলোতে অনুপস্থিত। গতানুগতিকতার বাইরে এমন একটি অনুষ্ঠান সময়ের দাবি বলেই অভিমত ব্যক্ত করেন ড. অখিল পোদ্দার। 

অনুষ্ঠান প্রযোজক হাসান শহিদ ফেরদৌস বলেন, এটি একটি জনক্ষমতায়নবিষয়ক অনুষ্ঠান। দুর্নীতি রোধ করে জনপ্রতিনিধিদের উন্নয়ন কাজ বাস্তবায়নে বাধ্য করাই অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্য। একুশে টেলিভিশনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মেজর জেনারেল (অব.) মোহাম্মাদ আলী শিকদারও এমনটি আশা করেন। তাঁর অভিমত, এই অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে কিছুটা হলেও অন্তত বন্ধ হবে অবাধ দুর্নীতির ডালপালা। বিশেষ করে বিভিন্ন ভাতার কার্ডের নামে লুটপাট, ঠিকাদারিতে পুকুর চুরিসহ নানামূখি অনিয়ম-অপরাধ। 

উল্লেখ্য, জবাবদিহিমূলক অনুষ্ঠানটি ইতোমধ্যেই বেশ সাড়া ফেলেছে দেশের প্রত্যন্ত এলাকায়। কারণ হ্যালো লিডার হচ্ছে প্রান্তিক মানুষের কথা বলার প্ল্যাটফরম। গণমানুষের দুঃখ কষ্ট ও অপরাধ অনিয়ম নিয়ে জনুদর্ভোগ শিরোনামে বিশেষ প্রতিবেদন করে বহু মানুষের প্রিয়পাত্র হয়েছেন ড. অখিল পোদ্দার। এই অনুষ্ঠানটিও দর্শকমহলে সাড়া ফেলবে বলে আশা করেন একুশে টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মেজর জেনাারেল মোহাম্মাদ আলী শিকাদার (অব.)। তিনি বলেন, অনেক মানুষের প্রত্যাশা ও প্রাপ্তির হিসেবে মেলাতেও সহায়ক হবে একুশে টিভির হ্যালো লিডার। 

আরকে//

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি