ঢাকা, বুধবার   ২৯ জুন ২০২২

নওগাঁয় ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা

নওগাঁ প্রতিনিধি

প্রকাশিত : ২০:৪৮, ১২ মে ২০২০

অনাস্থাপত্র ইউপি ভবন ও সেই ইউপি চেয়ারম্যান- ছবি একুশে টিভি।

অনাস্থাপত্র ইউপি ভবন ও সেই ইউপি চেয়ারম্যান- ছবি একুশে টিভি।

নওগাঁর বদলগাছীতে বালুভরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ আয়েন উদ্দীনের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে অনাস্থাপত্র দিয়েছেন ওই ইউনিয়নের সদস্যরা। রোববার (১০ মে) বিকেলে ইউনিয়নের ৮ জন সদস্যের স্বাক্ষরিত অনাস্থাপত্র উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে জমা দেয়া হয়।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ইউপি চেয়ারম্যান শেখ আয়েন উদ্দীন সদস্যদের সাথে অসদাচরণ করে থাকেন। নিয়ম বহির্ভূতভাবে পরিষদের অধিকাংশ কাজ চেয়ারম্যান নিজে না করে তার ছেলে শেখ আহসান উল্লা মুক্তি ও ইউপি সচিবকে দিয়ে করিয়ে থাকেন। এছাড়াও সরকারি বরাদ্দ, ত্রাণ, কাবিখা, কাবিটা, টিআর, হাটের অর্থ, রাজস্ব খাতের অর্থ ও ইউপি ট্যাক্সের অর্থ আত্মসাতের কথাও উল্লেখ করা হয়েছে অনাস্থাপত্রে। দুর্যোগপূর্ণ অবস্থায় করোনা ভাইরাসের ত্রাণ ইউপি সদস্যদের না জানিয়ে তার ছেলে ও ইউপি সচিবকে দিয়ে ভাগ বণ্টন করিয়েছেন।

অভিযোগে আরো উল্লেখ করা হয়েছে- ইউপি মেম্বারদের নির্দিষ্ট করে বসার কোনো কক্ষ নাই। কিন্তু চেয়ারম্যান নিয়ম বহির্ভূতভাবে তার ছেলেকে পরিষদ ভবনের দ্বিতীয় তলায় একটি কক্ষ দিয়ে রেখেছেন। পাশাপাশি ছেলেকে দিয়ে বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী ও মাতৃত্বকালীন ভাতা ইউপি মেম্বারদের অবগত না করে বণ্টন করান। ইউপি মেম্বারদের সাথে কোন আলোচনা না করে চেয়ারম্যান নিজের ইচ্ছেমত পরিষদের সকল কার্যক্রম পরিচালনা করছেন। 

ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড মেম্বার আজাদুল ইসলাম বলেন, প্রতি বছর টিআর-কাবিখা প্রকল্পের যে বরাদ্দ আসে কোন খাতে কিভাবে ব্যয় করা হবে চেয়ারম্যান আমাদের সাথে আলোচনা না করে নিজের ইচ্ছেমত ছেলেকে নিয়ে খরচ করে থাকেন। আমরা জানতে চাইলেও চেয়ারম্যান কোন কর্ণপাত করেন না। এছাড়া আমাদের মেম্বারদের জন্য প্রতি মাসে যে ৪ হাজার ৬শ টাকা সম্মানী দেয়ার কথা সেটাও দেয়া হয়না। গত চার বছরে মাত্র ৮ মাসের সম্মানী পেয়েছি। বাকি টাকার এখনও পাইনি।

ইউপি মেম্বার হুমায়ন রশিদ, জিয়াউর রহমান জিয়া, মেছের উদ্দিন, আব্দুস সালাম, ওয়াহেদ আলী সরদার, জহুরুল ইসলাম এবং মহিলা মেম্বার রাজিয়া সুলতানা ও নার্গিস পারভিন বলেন, চেয়ারম্যান সব সময় আমাদের সাথে অসদাচরণ করে থাকেন। কোথায় কি কাজ হচ্ছে, আমাদের অবগত না করে চেয়ারম্যান তার ছেলে শেখ আহসান উল্লা মুক্তিকে দিয়ে করিয়ে থাকেন। বিষয়গুলো তারা কর্তৃপক্ষের কাছে খতিয়ে দেখার অনুরোধ করেছেন।

এ বিষয়ে বালুভরা ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান শেখ আয়েন উদ্দীন বলেন, আমি ইউপি চেয়ারম্যান নির্বাচনে মনোনয়ন পাওয়ার পর থেকেই একটি পক্ষ আমার বিরুদ্ধে গুজব রটাতে উঠেপড়ে লেগে আছে। কিন্তু কোনভাবেই তারা পেরে উঠতে পারছে না। আমার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ আনা হয়েছে সেগুলো মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

তিনি আরো বলেন, ট্যাক্সের টাকা থেকে আমিসহ মেম্বারদের সম্মানি দেয়া হয়। মেম্বাররা যে কয় মাসের সম্মানি পেয়েছে, আমিও তদ্রুপ পেয়েছি। এখানে আত্মসাতের কোন ঘটনা ঘটেনি।

এ বিষয়ে বদলগাছী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোঃ আবু তাহির বলেন, ওই ইউনিয়নের মেম্বাররা একটি অনাস্থাপত্র দিয়েছেন। সরকারি বিধি মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি