ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৭ মে ২০২২, || জ্যৈষ্ঠ ২ ১৪২৯

টানা জয় রিয়ালের

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১০:৪২, ৫ ডিসেম্বর ২০২১

লা লিগায় রিয়াল মাদ্রিদ জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছে। এবার রিয়াল সোসিয়েদাদকে হারিয়েছে তারা। এ নিয়ে টানা ৬ ম্যাচ জিতল মাদ্রিদের দলটি। আর অপরাজিত রইল টানা ৮ ম্যাচ। এর মধ্যদিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষস্থান আরও মজবুত করলো কার্লো আনচেলত্তির দল।

শনিবার রাতে প্রতিপক্ষের মাঠে ২-০ গোলের জয় পেয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। ভিনিসিউস জুনিয়র দলকে এগিয়ে নেওয়ার পর ব্যবধান দ্বিগুণ করেন লুকা জোভিচ।

আগের ম্যাচের একাদশে দুটি পরিবর্তন আনেন রিয়াল কোচ। দানি কারভাহল এবং রড্রিগো গোয়েস একাদশে সুযোগ পান। তবে এ ম্যাচে রিয়াল বড় ধাক্কা খায় ১৭ মিনিটের মাথায়। কারণ এসময় আহত হয়ে মাঠ ছাড়েন করিম বেনজামা। তার পরিবর্তে মাঠে নামানো হয় লুকা জোভিচকে। 

শনিবার রিয়ালের জয়ের নায়ক ছিলেন জোভিচ। তিনি নিজে একটি গোল করার পাশাপাশি অপর গোলেও সহায়তা দেন।

ম্যাচে ধীরে ধীরে আক্রমণে চাপ বাড়ানো রিয়াল ২২তম মিনিটে একটি সুযোগ পায়। তবে রদ্রিগোর শট পাঞ্চ করে ফেরান গোলরক্ষক আলেক্স রেমিরো। ৩৯তম মিনিটে কয়েক সেকেন্ডের ব্যবধানে দুবার রিয়ালের রক্ষণে ভীতি ছড়ায় স্বাগতিকরা, দুবারই বিপদমুক্ত করেন ডিফেন্ডার এদের মিলিতাও। 

প্রথমার্ধে খুঁজে ফেরা ছন্দটা যেন বিরতির পর মাঠে নেমেই পেয়ে যায় রিয়াল। প্রথম মিনিটের সুযোগটা ভেস্তে গেলেও পরের মিনিটেই দারুণ নৈপুণ্যে দলকে এগিয়ে নেন ভিনিসিউস। বাঁ দিক দিয়ে আক্রমণে উঠে ডি-বক্সের লাইন ধরে একটু আড়াআড়ি গিয়ে লুকা জোভিচকে পাস দিয়ে ভেতরে ঢুকে পড়েন ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড। ফিরতি পাস পেয়ে প্রথম ছোঁয়ায় ডান পায়ের শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন তিনি। আসরে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ এই গোলদাতার গোল হলো ১০টি। 

চার মিনিট পর দ্বিতীয় গোল পেতে পারতেন ভিনিসিউস। কিন্তু এবার ফাঁকায় বল পেয়েও শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি তিনি। চাপ ধরে রেখে ৫৭তম মিনিটে ব্যবধান বাড়ায় তারা। কর্নার থেকে উড়ে আসা বলে হেড করে গোলমুখে বাড়ান কাসেমিরো। নিচু হয়ে হেডে লক্ষ্যভেদ করেন সার্বিয়ান স্ট্রাইকার লুকা জোভিচ। ২০২০ সালের ফেব্রুয়ারির পর রিয়ালের জার্সিতে এটাই তার প্রথম গোল। 

৭০তম মিনিটের পর রিয়াল কিছুটা রক্ষণাত্মক হয়ে পড়ে। সেই সুযোগে চাপ বাড়ায় সোসিয়েদাদ। যদিও তেমন কোনো সুযোগ তৈরি করতে পারেনি তারা। পুরো ম্যাচে গোলের উদ্দেশ্যে ১০টি শট নিয়েও একটিও লক্ষ্যে রাখতে পারেনি দলটি।

১৬ ম্যাচে ১২ জয় ও তিন ড্রয়ে ৩৯ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রিয়াল। এক ম্যাচ কম খেলা সেভিয়া ৩১ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে। ১৬ ম্যাচে ৩০ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে রিয়াল বেতিস। অ্যাথলেটিকো মাদ্রিদ ১৫ ম্যাচে ২৯ পয়েন্ট নিয়ে আছে চতুর্থ স্থানে। সমান পয়েন্ট নিয়ে তারপরেই ১৬ ম্যাচ খেলা সোসিয়েদাদ। 

বার্সেলোনা ২৩ পয়েন্ট নিয়ে আছে সাত নম্বরে। তারাও খেলেছে ১৫ ম্যাচ।

এএইচ/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি