ঢাকা, বুধবার   ৩০ নভেম্বর ২০২২

এত গোল! আগে কখনও দেখেনি ম্যানচেস্টার ডার্বি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১২:৪৬, ৩ অক্টোবর ২০২২

দুই হ্যাটট্রিকম্যান হ্যালান্ড ও ফোডেন

দুই হ্যাটট্রিকম্যান হ্যালান্ড ও ফোডেন

অ্যারলিং হ্যালান্ড, বয়স মাত্র ২২। তবে এরই মধ্যে অবিশ্বাস্য ধারাবাহিকতায় নিজেকে বর্তমান সময়ের অন্যতম স্ট্রাইকার হিসেবে প্রতিষ্ঠা করেছেন। গোলের পর গোল করে প্রতি ম্যাচেই নিজেকেই নিয়ে যাচ্ছেন অনন্য উচ্চতায়। 

রোববার রাতের ম্যানচেস্টার ডার্বিতে তার আগুন ঝরা পারফর্ম্যান্সে জ্বলে পুড়ে ছাই হয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। নরওয়েজিয়ান এই তারকার সঙ্গে এদিন গোল উৎসবে যোগ দিয়েছিলেন আরেক তরুণ, ইংলিশ মিডফিল্ডার ফিল ফোডেন। এই দুজনের জোড়া হ্যাটট্রিকে ম্যান ইউকে ৬-৩ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে ম্যান সিটি।

সিটির ঘরের মাঠে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচে শুরু থেকেই আক্রমণের পসরা সাজিয়ে ইউনাইটেডকে চাপে রাখে ফোডেন-হ্যালান্ডরা। ম্যাচের ৮ মিনিটের মাথায় বা প্রান্ত দিয়ে বার্নার্দো সিলভার লো ক্রস থেকে পাওয়া বল জালে জড়িয়ে গোল উৎসবের শুরুটা করেন ফোডেন। 

এর পরের দুটি গোল আসে হ্যালান্ডের মাথা ও পা থেকেই। ৩৪ মিনিটে কর্নার থেকে দারুণ এক হেডে এবং মিনিট তিন পরেই ডিবক্সের সামনে থেকে ডি ব্রুইনার পাঠানো ক্রসে লক্ষ্যভেদ করে ব্যবধান তিনগুণ করেন এই সিটি তারকা।

তবে এ ম্যাচে হ্যালান্ড থামার কোনও নাম নেননি। কখনো নিজে গোল করেছেন, কখনো করিয়েছেন সতীর্থকে দিয়ে। বিরতির আগে ফোডেনের করা দ্বিতীয় গোলেই ছিলেন এসিস্টের ভূমিকায়।

যার ফলে প্রথমার্ধ শেষের আগেই ৪-০ গোলের লিড জানান দিচ্ছিল বহুল অপেক্ষার ডার্বি কতটা একপেশে বানিয়ে ফেলেছিল পোপ গার্দিওলার শিষ্যরা। 

বিরতির পরেও ম্যাচে সিটির আধিপত্য একটুও কমেনি। ৫৬ মিনিটে অ্যান্টনির দূরপাল্লার শট জালে জড়ালে এক গোল শোধ করে ইউনাইটেড। পরের গল্পটা ফের সিটিময়। ৬৪ মিনিটে দলের পঞ্চম গোলটি করার পথে এবারের মৌসুমে নিজের তৃতীয় হ্যাটট্রিক পূরণ করেন হ্যালান্ড। 

যার সবকটিই এসেছে এই ইহতিহাদের। চলতি গ্রীষ্মেই সিটিতে যোগ দেয়া হ্যাল্যান্ডের ১০ ম্যাচে গোলসংখ্যা এখন ১৭! পাগলাটে গতিতে ছুটে চলা এই স্ট্রাইকার মৌসুম শেষ হতে হতে কোথায় গিয়ে থামবেন, তা অনুমান করেও বলা মুশকিল। 

যাইহোক, হ্যালান্ডের হ্যাটট্রিকের আট মিনিট পরেই হ্যাটট্রিকে নিজের নাম লেখান ফিল ফোডেনও।

ফলে ৬-১ গোলে পিছিয়ে পড়ে ম্যানইউ তখন বড় হারের শঙ্কায়। শেষদিকে মার্সিয়ালের জোড়া গোলে কিছুটা সম্মান নিয়ে মাঠ ছাড়তে পেরেছে এরিক টেন হেগের দল। দুই দল মিলিয়ে এই ম্যাচের গোল সংখ্যা ছিল ৯, ম্যানচেস্টার ডার্বির ইতিহাসে এত গোল আগে কখনো হয়নি।

মূল একাদশে অনেক আগেই জায়গা হারানো রোনালদোকে এদিন শেষ দিকেও মাঠে নামাননি ম্যানইউ কোচ। ফলে ডাগআউট বসেই দলের ভরাডুবি দেখে গেছেন পর্তুগিজ যুবরাজ।

এদিকে, আট ম্যাচে ৭ জয়ে ২১ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আর্সেনাল। বড় জয়ে তাদের সঙ্গে ব্যবধান কমাল সিটি। ৬ জয় ও ২ ড্রয়ে ২০ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছেন হ্যালান্ড-ফোডেনরা। 

আর এক ম্যাচ কম খেলা ইউনাইটেড ১২ পয়েন্ট নিয়ে আছে ষষ্ঠ স্থানে।

এনএস//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি