ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৬ জুলাই ২০২৪

পরিসংখ্যানে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৫:৩০, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | আপডেট: ১৫:৫৭, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮

বাংলাদেশ বনাম শ্রীলঙ্কা ম্যাচের মধ্য দিয়ে মাঠে গড়াবে এশিয়া কাপের ১৪তম আসর। আজ শনিবার বিকেল সাড়ে পাঁচটায় শুরু হবে ম্যাচটি। ১৯৮৪ সাল থেকে শুরু হওয়া এশিয়া কাপ ক্রিকেটে এখনও পর্যন্ত খেলা হয়েছে মোট ৯০টি ম্যাচ। এর মধ্যে ফল এসেছে ৮৯টি ম্যাচে, পরিত্যক্ত হয়েছে অন্য ম্যাচটি।

গেলো তিন আসরের মধ্যে দুই আসরেই ফাইনাল খেলার অভিজ্ঞতা। তাই তো আত্মবিশ্বাসী বাংলাদেশ অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা। তবে সংযুক্ত আরব আমিরাতের এবারের আসর হওয়ায় কন্ডিশন নিয়ে কিছুটা চিন্তিত টাইগাররা। তবুও ২০১২ ও ২০১৬ সালের ফাইনাল থেকে আত্মবিশ্বাস ও অভিজ্ঞতাকেই এবারেও কাজে লাগানোর পরিকল্পনা। যদিও ২০১৪ সালের এশিয়া কাপ বিজয়ী আত্মবিশ্বাসী শ্রীলঙ্কার সামনেই পড়তে হবে প্রথম ম্যাচে। কিন্তু নেতিবাচক কিছুই ভাবছে না টইগাররা।

এশিয়া কাপে ১৯৮৬ সাল থেকে অংশ নেয় বাংলাদেশ। এশিয়ার এই সেরা টুর্নামেন্টে এত বছর ধরে খেললেও ২০১২ সালে ১১ তম আসরে প্রথমবার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে জয় পায় বাংলাদেশ। সেই ম্যাচে শ্রীলঙ্কা বাংলাদেশের সামনে ২৩২ রানের লক্ষ্য দেয়। তবে বৃষ্টির আইনে বাংলাদেশের সামনে লক্ষ্য দাঁড়ায় ৪০ ওভারে ২১২ রান। আর লক্ষ্য টপকেই বাংলাদেশের প্রথম জয়। তবে ২০১৪ সালের এশিয়া কাপে বাংলাদেশ হারে লঙ্কানদের বিপক্ষে। বাংলাদেশের দেওয়া ২০৪ রান তিন উইকেট ও এক ওভার হাতে রেখেই পার হয়ে যায় শ্রীলঙ্কা। সেবার শিরোপাও উঁচিয়ে ধরে তারা। কিন্তু ২০১৬ সালের এশিয়া কাপে আবারও পাল্টে যায় চিত্র। সেবার টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে মাঠে গড়ায় এশিয়া কাপ। বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ে ১৪৮ রানের লক্ষ্যে খেলতে নামা শ্রীলঙ্কা ১২৪ রানেই গুটিয়ে যায়। ২৩ রানে জয় পায় টাইগাররা। এবারের এশিয়া কাপ আবারও ফিরেছে ওয়ানডে ফরম্যাটে। তবে দলে নেই সাব্বির রহমান। তবু নিজেদের প্রিয় ফরম্যাটে নির্ভার থাকছে বাংলাদেশ।

অপরদিকে, ১৯৮৬ সাল থেকে মোট ৪৪টি একদিনের আন্তর্জাতিক ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে দুই দল। সেখানে ৩৬টি ম্যাচেই জিতেছে শ্রীলঙ্কা। বিপরীতে বাংলাদেশ জিতেছে মাত্র ছয়টিতে। তবে সর্বশেষ নিদাহাস ট্রফিতে বাংলাদেশের কাছে দুই ম্যাচেই হেরেছে লঙ্কানরা।

এবারের টুর্নামেন্টের নতুন আসর শুরুর আগে এক নজরে দেখে নেওয়া যাক এশিয়া কাপে বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কার পরিসংখ্যান-

দলীয় পরিসংখ্যান-

দলীয় সর্বোচ্চ

বাংলাদেশ- ৩২৪/৫, ডাম্বুলা, ২০১৭

শ্রীলংকা- ৩৫৭/৯, লাহোর, ২০০৮

দলীয় সর্বনিম্ন

বাংলাদেশ- ৭৬, কলম্বো, ২০০২

শ্রীলংকা- ১৪৭, ঢাকা ২০০৯

সবচেয়ে বেশি রান

বাংলাদেশ- ৬৪৩, তামিম ইকবাল

শ্রীলংকা- ১২০৬, কুমার সাঙ্গাকারা

ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ইনিংস

বাংলাদেশ- ১২৭, তামিম

ইকবাল, ডাম্বুলা, ২০১৭

শ্রীলংকা- ১৬১* তিলকারত্নে দিলশান, মেলবোর্ন, ২০১৫

সবচেয়ে বেশি সেঞ্চুরি

বাংলাদেশ- ২, তামিম ইকবাল

শ্রীলংকা- ৫, কুমার সাঙ্গাকারা

সর্বোচ্চ জুটি

বাংলাদেশ- ১৪৪, তামিম ও

সাকিব, ডাম্বুলা, ২০১৭

শ্রীলংকা- ২১৫, থারাঙ্গা ও জয়াবর্ধনে, ঢাকা, ২০১০

সবচেয়ে বেশি উইকেট

বাংলাদেশ- ২৪, মাশরাফি মুর্তজা

শ্রীলংকা- ৩১, মুত্তিয়াহ মুরালিধরন

সেরা বোলিং

বাংলাদেশ- ৫/৬২, আবদুর

রাজ্জাক, পাল্লেকেলে, ২০১৩

শ্রীলংকা- ৬/২৫, চামিন্দা

ভাস, পিটারমারিজবার্গ, ২০০৩

সবচেয়ে বেশি ডিসমিসাল

বাংলাদেশ- ২১, মুশফিকুর রহিম

শ্রীলংকা- ৪৯, কুমার সাঙ্গাকারা

একে//


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted







© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি