ঢাকা, সোমবার   ১৫ জুলাই ২০২৪

২৬০-৭০ হলে লড়াইয়ের সুযোগ থাকবে: মাশরাফি

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৮:৩৩, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | আপডেট: ০৮:৪৫, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮

অতীতের দুই আসরে ট্রফি হাতছাড়া করলেও তৃতীয়বার টাইগারদের জন্য থাকছে ট্রফি জয়ের দারুণ সুযোগ। তাদের জন্য এবার সুযোগ থাকছে বদলা নেওয়ারও! কারণ ২০১৬ সালের শিরোপা ধোনিদের কাছেই হেরেছিল তারা। আজ আবার সেই ভারতকে হারিয়েই প্রথমবারের মতো এশিয়ার শ্রেষ্ঠত্ব অর্জনের দারুণ সুযোগ দেখছেন অধিনায়ক মাশরাফি। তবে বলছেন ক্যারিয়ারের শেষ লগ্নে এসে মাশরাফি কি পারবেন একটি শিরোপা জিততে? মাশরাফি অবশ্য দেশের হয়ে খেলতে পারাকেই বড় অর্জন হিসেবে দেখছেন। শিরোপা জয়কে তিনি ক্যারিয়ারের মাপকাঠি হিসেবে মানতে নারাজ।

তবে ফলাফল যাই হোক, ফাইনালে নিজেদের সেরা ক্রিকেট খেলতে টাইগাররা এখন প্রস্তুত। টিম হোটেলে ম্যাচ পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি বললেন, আমাদের জন্য অনেক বড় একটা সুযোগ থাকছে। ফাইনালতো কেবল একটি ম্যাচ মাত্র। নিজেদের সেরা দিনটা কাটালে যে কোনও কিছুই হতে পারে। ছেলেরা ভালো অবস্থায় আছে। অবশ্যই তামিম ও সাকিবকে হারানো আমাদের জন্য ভালো কিছু নয়। তবে গত ম্যাচ থেকে ছেলেরা অনেক কিছু শিখেছে। সাকিব খেলবে না জানার পর ওরা নিজেদের সবটুকু দিয়ে লড়েছে। অবশ্য আমাদের ব্যাটিং নিয়ে কিছু চিন্তা আছে। নিজেদের দিনটা ভালো গেলে যে কোনও কিছুই হতে পারে। আমাদের মানসিকভাবে শক্ত থাকতে হবে, শেষ বল পর্যন্ত লড়ে যেতে হবে।

ভারতের ব্যাটিং লাইনআপ অনেক শক্তিশালী। তাই তাদের বিপক্ষে ভালো করতে হলে যথেষ্ট রান স্কোরবোর্ডে থাকতে হবে। মাশরাফি লড়াই করার জন্য স্কোরবোর্ডে অন্তত ২৭০ রান চান। জয়ের ক্ষেত্রে এই রানটুকু যথেষ্ট নয় বলে মত তার, কত রান নিরাপদ- এর উত্তর দেওয়া কঠিন। প্রথমত, আমাদের টপ অর্ডার যেভাবে খেলেছে, তাতে কোনও রান আগে থেকে ঠিক করে দেওয়া কঠিন। যেহেতু ভারতের ব্যাটিং অনেক শক্তিশালী। জেতার স্কোর বলছি না, ২৬০-৭০ হলে লড়াই করার সুযোগ থাকবে। আগে বোলিং করলে অবশ্যই চাইব যত কমে সম্ভব ওদের আউট করতে। ব্যাটিং বা বোলিং যাই করি শুরুটা ভালো হওয়া জরুরি।

পাকিস্তানের পর ভারতকেও সাকিব-তামিমকে ছাড়া হারানো সম্ভব। কিন্তু সেটির পথ কেমন হতে পারে? এমন প্রশ্নের জবাবে মাশরাফির উত্তর, পথ তো মাঠের ভেতর থেকেই বের করতে হয়। একটা ভালো স্পেল, একটা ভালো ইনিংস এ সবই পথটা করে দেয়। এর জন্য দরকার মানসিকভাবে শক্ত থাকা, শতভাগ ফিট থাকা। শারীরিকভাবে তো রিকোভারি করা সম্ভব নয়। একদিনের ব্যবধানে ফাইনাল খেলতে হবে। আমাদের প্রয়োজন মানসিকভাবে শতভাগ ফিট থাকা। সেটা চেষ্টা করছি আমরা।

মাশরাফি বলেন, তবে একটা ট্রফি দিয়ে আমি নিজেকে বিচার করি না। ক্রিকেট একটা ট্রফির জন্য খেলিনি। বাংলাদেশের জন্য একটা ট্রফি দরকার। আমার বিশ্বাস হয়ত কোনও একদিন ইনশাল্লাহ বাংলাদেশ পারবে। ব্যক্তি মাশরাফিকে ট্রফি দিয়ে বিচার করবেন কি-না সেটা আপনাদের ব্যাপার। কিন্তু আমি নিজেকে এত সস্তা ভাবি না।

একে//


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted







© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি