ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৩ এপ্রিল ২০২৪

গ্রুপ পর্ব শেষে ব্যাটিংয়ের সেরা পাঁচে যারা

প্রকাশিত : ১৬:৩৬, ৭ জুলাই ২০১৯ | আপডেট: ২১:০৪, ৭ জুলাই ২০১৯

শনিবার অস্ট্রেলিয়া-দক্ষিণ আফ্রিকার ম্যাচ দিয়ে শেষ হলো দ্বাদশ বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব। এ পর্ব শেষে সেমি-ফাইনালে জায়গা করে নিয়েছে ভারত, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ও স্বাগতিক ইংল্যান্ড। আর গ্রুপ পর্ব শেষেই পাঁচজন ব্যাটসম্যান করেছেন পাঁচশর বেশি রান। এরমধ্যে তিনজনই আবার করেছেন  ছয়শ`র বেশি রান।

নকআউট পর্ব শেষে সংখ্যাটা বাড়তে পারে আরও। অথচ বিশ্বকাপের ইতিহাসে এর আগে মাত্র দুই জন ব্যাটসম্যান এক আসরে ছয়শর বেশি রান করতে পেরেছিল। তারা হলেন- শচীন টেন্ডুলকার (১১ ম্যাচে ৬৭৩ রান, ২০০৩ বিশ্বকাপ) এবং ম্যাথু হেইডেন (১১ ম্যাচে ৬৫৯ রান, ২০০৭ বিশ্বকাপ)।

তাহলে, আসুন দেখে নেয়া যাক এবারের বিশ্বকাপের গ্রুপ পর্ব শেষে সেরা ব্যাটসম্যানের তালিকায় রয়েছেন কারা...

১. রোহিত শর্মা (ভারত)

বার বার জীবন পেলে একজন ব্যাটসম্যান যে কতটা ভয়ঙ্কর হতে পারেন, তা অক্ষরে অক্ষরে বুঝিয়ে দিয়েছেন ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা। চলতি আসরে এখন পর্যন্ত খেলেছেন ৮ ম্যাচ। তাতে জীবন পেয়েছেন মোট ৮ বার। তবে এ সব ছাপিয়ে অবিশ্বাস্য পারফর্ম করে যাচ্ছেন এ ব্যাটসম্যান। এর মধ্যেই ৯২.৪২ গড়ে করেছেন ৬৪৭ রান। করেছেন ৫টি সেঞ্চুরি। যা এক বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ সেঞ্চুরির রেকর্ড।

এর আগে ২০১৫ সালে টানা চারটি সেঞ্চুরি করেছিলেন কুমার সাঙ্গাকারা। সব মিলিয়ে শচীন টেন্ডুলকারের সর্বোচ্চ ছয় সেঞ্চুরির রেকর্ডও ছুঁয়েছেন। এছাড়াও ২০০৩ বিশ্বকাপে করা শচীনের ৬৭৩ রানের রেকর্ডও রয়েছে শঙ্কায়।

২. ডেভিড ওয়ার্নার (অস্ট্রেলিয়া)

নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে চলতি বিশ্বকাপ দিয়েই জাতীয় দলে ফিরেছেন ডেভিড ওয়ার্নার। তিনি যে অস্ট্রেলিয়ার জন্য কতটা মূল্যবান তা ইতিমধ্যেই বুঝিয়ে দিয়েছেন পারফর্ম করে। শুরু থেকেই দারুণ পারফর্ম করে ৬৩৮ রান তুলেছেন এ ওপেনার। ৮৬.৫৭ গড়ে সমান ৩টি করে সেঞ্চুরি ও হাফসেঞ্চুরিও করেছেন। এখন পর্যন্ত এবারের আসরের সর্বোচ্চ ইনিংসটি খেলেছেন তিনি। বাংলাদেশের বিপক্ষে ১৬৬ রান।

৩. সাকিব আল হাসান (বাংলাদেশ)

বেশ কয়েক বছর ধরেই বিশ্বের এক নম্বর অলরাউন্ডার তিনি। আর কেন তিনি সেরা, তা বুঝিয়ে দিতে বিশ্বকাপকে বেছে নিয়েছেন এ অলরাউন্ডার। অবিশ্বাস্য ধারাবাহিকতায় গ্রুপ পর্বেই করেছেন ৬০৬ রান। গড় ৮৬.৫৭। গড়ে তার চেয়ে বেশি রান অন্য কেউ করলেও সেরা সাকিবই।

সাকিবের সবচেয়ে কম রানের ইনিংসটাও ৪১ রানের। কিংবদন্তী শচীন টেন্ডুলকারের এক আসরে করা ৭টি পঞ্চাশোর্ধ রানের রেকর্ড স্পর্শ করেছেন। তবে কিছুটা দুর্ভাগা নিজেকে ভাবতেই পারেন সাকিব। কারণ এত দুর্দান্ত পারফর্ম করেও তার দল ছিটকে পড়েছে সেরা চার থেকে। অন্যথায় নিজের রেকর্ডকে আরও সমৃদ্ধ করার সুযোগ থাকতো।

৪. অ্যারন ফিঞ্চ (অস্ট্রেলিয়া)

বল টেম্পারিং কাণ্ডে স্টিভ স্মিথ নিষেধাজ্ঞায় পড়ার পর হঠাৎ দলের নেতৃত্বের দায়িত্ব পান অজি ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চ। নেতৃত্বই যেন বদলে দেয় তাকে। শুরুর দিকে কিছুটা দুর্বলতা দেখা দিলেও পরে দারুণ ছন্দে চলে আসেন তিনি। তার ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছেন বিশ্বকাপেও। অস্ট্রেলিয়াকে প্রায় প্রতি ম্যাচেই উড়ন্ত সূচনা এনে দিচ্ছেন ফিঞ্চ। এর মধ্যে ৫৬.৩৩ গড়ে করেছেন ৫০৭ রান। করেছেন ২টি সেঞ্চুরি ও ৩টি হাফসেঞ্চুরি। সবচেয়ে বড় কথা বরাবরই হাত খুলে রানের গতি সচল রাখছেন তিনি। আসর জুড়ে তার স্ট্রাইক রেট ১০২.২১। আসরে সবচেয়ে বেশি ১৮টি ছক্কাও এসেছে তার ব্যাট থেকে।

৫. জো রুট (ইংল্যান্ড)

চার-ছক্কার ফুলঝুরি না ছুটিয়েও যে ধারাবাহিকভাবে বড় স্কোর করা যায়, তা অনেক আগ থেকেই দেখিয়ে এসেছেন ইংলিশ ব্যাটিং স্তম্ভ জো রুট। বিশ্বকাপেও আরও এক পশলা নিজেকে চেনালেন রুট। ইংল্যান্ডের টপ অর্ডারে নিয়মিত ভালো খেলে ৯ ইনিংসে করেছেন ৫০০ রান। গড় ৬২.৫০। স্ট্রাইক রেট ৯১.৭৪। তিনটি হাফসেঞ্চুরির সঙ্গে করেছেন ২টি সেঞ্চুরিও। তার দল সেমিতে যাওয়ায় সামনে আরও দুটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবেন রুট। তাতে আরও কিছু সাফল্য অর্জনের সুযোগ থাকছে এই ব্যাটসম্যানের।

এনএস/এসি

 


Ekushey Television Ltd.


Nagad Limted


© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি