ঢাকা, রবিবার   ১৮ এপ্রিল ২০২১, || বৈশাখ ৪ ১৪২৮

দুই দিনেই বড় হার দেখলো আফগানিস্তান

নাজমুশ শাহাদাৎ

প্রকাশিত : ১৮:৫৯, ৩ মার্চ ২০২১

আফগানিস্তানকে দ্বিতীয়বার গুটিয়ে দেয়ার আনন্দে মাতোয়ারা জিম্বাবুয়ে, ছবি- ক্রিকইনফো।

আফগানিস্তানকে দ্বিতীয়বার গুটিয়ে দেয়ার আনন্দে মাতোয়ারা জিম্বাবুয়ে, ছবি- ক্রিকইনফো।

আফগানিস্তানকে ১৩১ রানে গুটিয়ে দিয়েও দারুণ অস্বস্তিতে ছিল জিম্বাবুয়ে। তবে প্রথমদিন শেষে অধিনায়ক শিন উইলিয়ামসের ফিফটিতে অনেকটাই স্বস্তিতে ফেরে সফরকারীরা। আর আজ সেই উইলিয়ামসের অনবদ্য শতকেই ইনিংস জয়ের দ্বারপ্রান্তে ছিল জিম্বাবুয়ে। তবে ইব্রাহিম জাদরানের লড়াকু ফিফটিতে ইনিংস পরাজয় এড়ালেও বড় ব্যবধানেই হারে আফগানরা।

আগের দিনে ৫৪ রানে অপরাজিত থাকা শিন উইলিয়ামস আজ ব্যাট হাতে নেমে ৯ম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন। তার আগেই অবশ্য নিজের টেস্ট ক্যারিয়ারের চতুর্থ ফিফটিকে তৃতীয় শতকে রূপ দেন। যাতে দলের স্কোরকে নিয়ে যান সম্মানজনক পর্যায়ে। 

আমির হামজার পঞ্চম শিকার হওয়ার আগে বাঁহাতি উইলিয়ামসের উইলো থেকে আসে ১০৫ রান। তাঁর ১৭৪ বলের ইনিংসে ছিল ১০টি দর্শনীয় চারের মার। এর আগে দিনের শুরুতেই বার্লের (৮) আউটের পর রেগিস চাকাভার সঙ্গে গড়েন ৭৫ রানের দারুণ এক জুটি। চাকাভা ৪৪ রান করে ফিরলে এরপর দ্রুতই গুটিয়ে যায় জিম্বাবুয়ে, ২৫০ রানে।

এতে প্রথম ইনিংসে ১১৯ রানে পিছিয়ে পড়লেও প্রতিপক্ষকে গুটিয়ে দিতে মুখ্য ভূমিকা পালন করেন আফগান স্পিনার আমির হামজা। একাই তুলে নেন জিম্বাবুয়ের ৬টি উইকেট, ৭৫ রানের বিনিময়ে। যা তাঁর দুই টেস্ট ক্যারিয়ারে দ্বিতীয়বার পাঁচ বা ততোধিক উইকেট পাওয়ার ঘটনা। এছাড়া আরেক স্পিনার জাহির খান নেন ২টি উইকেট।এদিকে, দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে রীতিমত ধুঁকতে থাকে আফগানিস্তান। মাত্র ৪৭ রানেই ষষ্ঠ উইকেট হারিয়েও লড়ে যায় ইনিংস হার এড়াতে। ওপর প্রান্তে একের পর এক ফিরে গেলেও এ প্রান্ত আগলে রেখে একাই বুক চিতিয়ে লড়াই করেন ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান। দলকে ইনিংস হারের লজ্জা থেকে রক্ষা করেই তবে ক্ষান্ত দেন। 

অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে জাদরান যখন ক্রিজছাড়া হন, তখন দলের স্কোর ১২৯, অর্থাৎ ১০ রানের লিড হয়ে যায় আফগানদের। ত্রিপানোর বলে উইকেটের পিছনে ধরা পড়ার আগে ১৪৫ বল মোকাবেলায় খেলেন ৭৬ রানের অনবদ্য এক ইনিংস। যাতে ছিল ঝকঝকে ১০টি চারের মার। তাঁর আউটের পরেই মূলত শেষ হয় স্বাগতিকদের দ্বিতীয় ইনিংস। 

জাদরানকে আউট করে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা জাগালেও বিমুখ হতে হয় শেষ তিন উইকেট নেয়া ত্রিপানোকে। যাতে নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে মাত্র ১৭ রানের জন্য ব্যাট হাতে নামতে হয় জিম্বাবুয়েকে। সেইসঙ্গে মাত্র দুই দিনেই ১০ উইকেটের বড় জয় নিয়ে আনন্দে মাতে সফরকারীরা।

এর আগে মঙ্গলবার আবুধাবিতে শুরু হওয়া দুই টেস্ট সিরিজের প্রথমটিতে মুখোমুখি হয় দুই দল। ওইদিন সকালে টস জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে প্রথম বলেই উইকেট হারায় আফগানিস্তান। মুজারাবানির পেস তোপে এরপর মাত্র ৮ রানেই দ্বিতীয় উইকেট হারায় আসগর আফগানের দল। এরপর উইকেট শিকারে যোগ দেন আরেক পেসার ভিক্টর নায়ুচি। 

মূলত এই দুই বোলারের আগুনে বোলিংয়ে একে একে উইকেট হারাতে থাকা জিম্বাবুয়ে শেষ পর্যন্ত গুটিয়ে যায় ১৩১ রানেই। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৩৭ রান আসে অধিনায়ক আসগর আফগানের ব্যাট থেকে। এছাড়া ৩১ রান করেন ওপেনার ইব্রাহিম জাদরান। 

আর প্রতিপক্ষকে গুটিয়ে দেয়ার ক্ষেত্রে সবচেয়ে অগ্রগণ্য ভূমিকায় ছিলেন জিম্বাবুইয়ান পেসার ব্লেসিং মুজারাবানি। ৪৮ রানের বিনিময়ে সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট নেন তিনি। কম জাননি ভিক্টর নায়ুচিও। তিনটি উইকেট গেছে মাত্র চতুর্থ টেস্ট খেলতে নামা ২৮ বছর বয়সী এই পেসারের ঝুলিতে।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি