ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২১ নভেম্বর ২০১৯, || অগ্রাহায়ণ ৭ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

বাংলাদেশকে রুখে দিল ভারত

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২২:৩০ ১৫ অক্টোবর ২০১৯ | আপডেট: ২২:৪২ ১৫ অক্টোবর ২০১৯

কাতার বিশ্বকাপ ২০২২ ও এশিয়ান কাপের যৌথ বাছাইপর্বের ম্যাচে দুরন্ত বাংলাদেশকে রুখে দিল ভারত। কলকাতার যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনের এ ম্যাচে প্রথমার্ধে এগিয়ে থেকে দুর্বার খেলা বাংলাদেশকে ১-১ এ জয়বঞ্চিত করে স্বাগতিকরা। যাতে আরও একবার ড্র নিয়েই স্বস্তি পেয়েছে ভারত।  

মঙ্গলবার রাত ৮টায় শুরু হওয়া এ ম্যাচের ৪২ মিনিটে হেডে গোল করে বাংলাদেশের লিড এনে দেন দলের রাইট উইঙ্গার সাদ উদ্দিন। এর আগেই দুটি পেনাল্টি পেতে পারত বাংলাদেশ। খেলা শুরুর ২০ সেকেন্ডের মাথায় বাঁ প্রান্ত দিয়ে আক্রমণে উঠেছিলেন লেফট উইঙ্গার ইব্রাহিম। কিন্তু তাকে ডি বক্সের মধ্যে ফাউল করেন ভারতের রাহুল ভেকে। 

পরিষ্কার দেখা গেছে, ইব্রাহিমকে বেআইনিভাবে ফাউল করেছেন ভেকে। ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারি (ভিএআর) না থাকায় সে যাত্রায় বেঁচে যায় ভারত। এরপর ৮ মিনিটের সময় ভারতের বক্সের মধ্যে আবারও অবৈধভাবে ফাউল করেছিলেন সেই ভেকেই। এ যাত্রায়ও পেনাল্টি দেননি রেফারি। এ দুবারেই বাংলাদেশকে পেনাল্টি না দেওয়ায় সমালোচনা করেন টিভি ধারাভাষ্যকরা।

এ অর্ধে ভারত বেশি আক্রমণ করলেও কাজের কাজটি করেছে বাংলাদেশই। ৪২ মিনিটে অধিনায়ক জামাল ভুঁইয়ার সেট পিস থেকে উড়ন্ত হেডে গোল করেন সাদ উদ্দিন। বলটি বাতাসে ভাসতে ভাসতে ভারতের গোলরক্ষককে পেরিয়ে গেলেও চোখ রেখেছিলেন সাদ। উড়ন্ত হেডে বলের দিক পরিবর্তন করে জালে পাঠান সাদ।

আর ওই গোলের সুখ স্মৃতি নিয়ে বিরতিতে যায় জেমি ডে'র শিষ্যরা। ফিরে এসেও রিদম ধরে রাখে সফরকারীরা। বেশ কয়েকটি সুযোগও তৈরী করে তারা। তবে সেসব সুযোগ আর কাজে লাগাতে পারেনি জামাল ভুঁইয়ারা। 

তবে বার বার আক্রমণ করা ভারত খেলার ৮৮ মিনিটে সুযোগ পেয়ে আর ব্যর্থ হয়নি। এসময় আদিল খানের দেয়া গোলেই খেলায় সমতায় ফেরে সুনীল ছত্রির দল। শেষ পর্যন্ত আর কেউ জালের খোঁজ না পেলে ১-১ গোলেই নিষ্পত্তি হয় ম্যাচটি। আর জয়বঞ্চিত হয় বাংলাদশ। 

এর আগে কাতারের বিপক্ষে বাছাই পর্বের শেষ ম্যাচে হারলেও বাংলাদেশের লড়াকু মনোভাব যথেষ্ট প্রশংসা কুড়িয়েছে। তবে বাংলাদেশ ও ভারত দু’দলের র‍্যাঙ্কিংয়ে রয়েছে বেশ বড় পার্থক্য। ভারত আছে ফিফার তালিকায় ১০৪ নম্বরে, বাংলাদেশ রয়েছে ১৮৭ নম্বরে।

বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার শেষ দুটি ম্যাচ হয়েছে ২০১৩ ও ২০১৪ সালে, যে দুটি ম্যাচ ১-১ ও ২-২ গোলে ড্র হয়েছে। এরপর প্রায় পাঁচ বছরের বেশি সময়ে দু’দল মুখোমুখি হয়নি। কিন্তু ২০১৪ সালে ভারত ছিল র‍্যাঙ্কিংয়ের ১৭১ নম্বর স্থানে এখন আছে ১০৪ এ।

বাংলাদেশ ও ভারত এর আগে ২৮টি ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল। যেখানে বাংলাদেশ তিনটি ম্যাচে জয় পায়। ভারত জয় পায় ১৫টি ম্যাচে। ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে মোট ১১টি ম্যাচ ড্র হয়।

এনএস/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি