ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১১ আগস্ট ২০২২

বাজে ফিল্ডিং নিয়ে তামিমের ক্ষোভ, বললেন ‘এই সেই দিন’!

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৬:০৪, ৬ আগস্ট ২০২২

তামিম ইকবাল খান

তামিম ইকবাল খান

বাজে ফিল্ডিং করেও অনেকবারই ওয়ানডেতে উতরে গেছে বাংলাদেশ দল। ম্যাচ জিতিয়ে দিয়েছেন ব্যাটার কিংবা বোলাররা। যে কারণে আড়ালে থেকে যায় ফিল্ডিংয়ের ভুলগুলো। তবে, জিম্বাবুয়ের কাছে হারের পর সেটা সামনে চলে এল এবার।

ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবাল অবশ্য বরাবরই বলে এসেছেন, হারের পর নয়, জেতার পরও ভুলগুলো নিয়ে ভাবতে হবে। তামিম মনে করেন, ফিল্ডিংয়ের সেই ভুলগুলোরই মাশুল এবার দিতে হয়েছে জিম্বাবুয়ের কাছে ওয়ানডে ম্যাচ হেরে।

গত ৯ বছরে জিম্বাবুয়ের কাছে ওয়ানডে ম্যাচে হারেনি বাংলাদেশ। ১৯ ম্যাচ পর সেই আক্ষেপ মেটাল জিম্বাবুইয়ানরা। হারারেতে শুক্রবার রাতে ৩০৩ রানের বড় লক্ষ্য তাড়া করে ম্যাচ জিতে নেয় ৫ উইকেট আর ১০ বল হাতে রেখে।

ম্যাচ হারের পর বাজে ফিল্ডিং নিয়ে ক্ষোভ ঝাড়েন অধিনায়ক তামিম। বললেন, ‘বলতে গেলে প্রতিদিনই আমি ফিল্ডিং নিয়ে কথা বলেছি। বলেছি, এর জন্য একদিন না একদিন ভুগতে হবে। আজ (শুক্রবার) সেই দিন।’

টাইগার দলপতি যোগ করেন, ‘আমরা আগেও ক্যাচ ছেড়েছি, কিন্তু যে কোনোভাবে হোক ম্যাচ জিতে গেছি। কিন্তু যখন আপনি এমন ভালো উইকেটে চার-চারটি ক্যাচ ফেলেন দেবেন, ম্যাচ জিততে পারবেন না। মনে হচ্ছে, এটা নিয়ে আমাদের ভাবতে হবে, আগামী ম্যাচের আগেই।’

১৭৬ বলে ১৯২ রানের ঝড়ো জুটি গড়ে বাংলাদেশের হাত থেকে ম্যাচ বের করে নেন সিকান্দার রাজা ও ইনোসেন্ট কায়া। অথচ এই দুই ব্যাটারেরই কয়েকটি ক্যাচ ফেলেছেন টাইগার ফিল্ডাররা।

ইনিংসের ৪৩তম ওভারে রাজার ক্যাচ ফেলেন বদলি ফিল্ডার তাইজুল ইসলাম। ইনোসেন্ট কায়া তো জীবন পান ৭০ আর ৭৪ রানে। এমনকি ডেথ ওভারে রাজার সঙ্গে ৪২ রানের জুটি গড়া লুক জংওয়ের সহজ ক্যাচও ফেলে দেন তাসকিন আহমেদ।

অবশ্য ক্যাচ ড্রপ ছাড়াও হারের পেছনে বোলার আর ব্যাটারদেরও কিছু দায় দেখছেন তামিম। বোলারদের নিয়ে তার মন্তব্য, ‘আমরা সহজেই রান দিয়েছি। এটা বড় মাঠ, ডাবল হওয়া স্বাভাবিক। এটা নিয়ে আমি বিরক্ত নই। আমার বিরক্তি হল, আমরা সহজ এক রানও ছেড়ে দিয়েছি এবং ডট বল করে চাপ বাড়াতে পারিনি।

সেইসঙ্গে ব্যাটিংয়ে আরও ১৫-২০টা রান বেশি হতে পারতো বলেও মনে করেন তামিম। তিনি বলেন, ‘আমাদের আরও ১৫-২০ রান বেশি করা দরকার ছিল। এক উইকেট হারিয়েই আমরা আড়াইশর কাছাকছি তুলে ফেলেছিলাম। সেই জায়গা থেকে আমাদের আরও ১৫-২০টা রান বেশি করা উচিত ছিল।’

এদিকে, হ্যামস্ট্রিংয়ের চোটে এই সিরিজ থেকেই ছিটকে গেছেন টপ স্কোররার লিটন দাস। চোটে পড়েছেন পেসার শরিফুলও। ফিল্ডিংয়ে মাঠে ছিলেন না মুশফিকুর রহিমও। এ অবস্থায় দ্বিতীয় ম্যাচে একাদশ গড়া নিয়েই চিন্তিত টিম ম্যানেজমেন্ট।

আগামী রোববার (৭ আগস্ট) একইমাঠে একই সময়ে গড়াবে দুই দলের মধ্যকার দ্বিতীয় ওয়ানডে ম্যাচ। আর তৃতীয় ও শেষ ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হবে ১০ আগস্ট।

বাংলাদেশ একাদশ (সম্ভাব্য):
তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), এনামুল হক বিজয় (উইকেট রক্ষক), মুশফিকুর রহিম, মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসাইন, মোসাদ্দেক হোসাইন, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, মুস্তাফিজুর রহমান ও হাসান মাহমুদ।

এনএস//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২২ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি