ঢাকা, শনিবার   ০৪ এপ্রিল ২০২০, || চৈত্র ২১ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

‘বিশ্বের যে কোনও মাঠে ছক্কা মারতে পারি’

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৭:২৫ ৯ ডিসেম্বর ২০১৯

ভারতীয় নয়া হার্ডহিটার শিবম দুবে

ভারতীয় নয়া হার্ডহিটার শিবম দুবে

বিশ্বের যে কোনও মাঠে ছক্কা মারার ক্ষমতা রাখেন বলেই ঘোষণা দিলেন ভারতীয় হার্ডহিটার শিবম দুবে। রোববার (৮ ডিসেম্বর) ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে তিন নম্বরে নেমে ৩০ বলে ৫৪ রানের ঝকঝকে ইনিংস খেলে ক্রিকেটমহলের নজর কেড়ে নিয়েছেন তিনি।

তার সেই ইনিংসে ছিল চারটি ছয়ের মার। যার মধ্যে তিনটিই মেরেছিলেন ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক কাইরন পোলার্ডের একই ওভারে। মূলত দুবের দাপটেই টস হেরে ব্যাট করতে নেমে সাত উইকেটে ১৭০ তুলেছিল ভারত। যদিও তা জেতার পক্ষে যথেষ্ট ছিল না। 

কেননা, এদিন ত্রিভূবনান্থাপুরমে ৯ বল বাকি থাকতেই জয়ের লক্ষ্যে পৌঁছে যায় উইন্ডিজ। লেন্ডল সিমন্সের ৪৫ বলে অপরাজিত ৬৭ রানের ইনিংস ৮ উইকেটের বড় জয় এনে দেয় ওয়েস্ট ইন্ডিজকে। যে ইনিংস খেলার পথে চারটি করে চার ও ছক্কা হাঁকান ক্যারিবিয় এই ওপেনার। হন ম্যাচ সেরাও। 

এদিকে, ম্যাচ শেষে পর প্রচারমাধ্যমের সামনে এসে শিবম বলেন, “আমার মনে হয় এই মাঠ (ত্রিভূবনান্থাপুরম) যথেষ্ট বড়। তবে যে কোনও মাঠ পার করার ক্ষমতা আমার রয়েছে। যার কিছুটা এই ম্যাচেও আপনারা দেখেছেন। আর এই ক্ষমতা আমার রয়েছে।”

এদিন ইনিংসের শুরুতে শিবম অবশ্য বড় শট নিতে পারছিলেন না। হাঁকাতে পারছিলেন না কোনও বাউন্ডারিও। তখন টাইমিংয়ের চেয়ে শক্তিতে জোর দিতে চাইছিলেন তিনি। যা কাজে আসছিল না। তবে শক্তিই যে তার প্রধান অস্ত্র, তা জানিয়ে দিতে দ্বিধাহীন শিবম। তার কথায়, “আমার মনে হয়, পাওয়ারই আমার শক্তি। আর আমি এভাবেই খেলব।”

তিনি যখন টাইমিংয়ের হেরফেরে ভুগছিলেন, তখন অন্যপ্রান্তে থাকা রোহিত শর্মার থেকে সাহায্য পেয়েছিলেন। ভারতীয় দলের সহ-অধিনায়ক শান্ত থাকতে বলেছিলেন তাকে। 

এ বিষয়ে শিবম বলেন, “তিন নম্বরে ব্যাট করতে নামা একটা বড় সুযোগ। শুরুতে অবশ্যই চাপ ছিল। আন্তর্জাতিক ম্যাচে খেলছি যখন, তা থাকবেই। তখন রোহিত ভাই সাহায্য করেছিল। একজন সিনিয়র ক্রিকেটারের থেকে এমন মোটিভেশনেরই দরকার ছিল। তার পর একটা ছয় মারলাম এবং সেই থেকে ব্যাটে-বলে হতে থাকল।”

এনএস/

New Bangla Dubbing TV Series Mu
New Bangla Dubbing TV Series Mu

© ২০২০ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি