ঢাকা, শুক্রবার   ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, || আশ্বিন ৯ ১৪২৮

মার্কিন ‘বিশ্বাসঘাতকতা’য় মর্মাহত তালেবান!

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৫:০২, ৩ সেপ্টেম্বর ২০২১

আফগানিস্তান ছেড়ে যাওয়ার আগে ২৭টি চপার ও ৭৩টি বিমান অকেজো করে রেখে যায় মার্কিন সেনারা। এই ঘটনাকে ‘বিশ্বাসঘাতকতা’ হিসেবেই দেখছে দেশটির বর্তমান শাসকগোষ্ঠী তালেবান। জানা গেছে, বর্তমানে ৪৮টি বিমান বা চপার রয়েছে তালেবানের হাতে। 

চুক্তি অনুযায়ী, গত ৩১ অগস্ট আফগানিস্তান ছাড়ার মেয়াদ ছিল যুক্তরাষ্ট্রের। তবে সেই মেয়াদের একদিন আগেই কাবুল ছেড়ে চলে যায় মার্কিন সেনারা। কয়েক হাজার মার্কিন ভিসাধারী আফগান এবং কয়েকশো মার্কিন নাগরিককে পিছনে ফেলে দিয়ে যায় আমেরিকান সেনারা। পাশাপাশি প্রচুর অস্ত্রসস্ত্র, যুদ্ধের সামগ্রী, যানবাহন পিছনে ফেলে দিয়ে যায় তারা।

এর আগে কান্দাহার এবং বাগরামে মার্কিন সেনাদের ফেলে আসা অস্ত্র, গাড়ি, হেলিকপ্টার তালেবানের হাতে চলে যাওয়ার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই অস্বস্তিতে পড়েছিল বাইডেন প্রশাসন। আর সেই কারণেই কাবুল ছাড়ার আগে নিজেদের ফেলে যাওয়া যাবতীয় যানবাহন, সরঞ্জাম অকেজো করে দিয়ে যায় মার্কিন সেনারা।

আল-জাজিরার এক প্রতিবেদন অনুযায়ী, তালেবান নেতারা বলেছে, ‘মার্কিন সেনাদের এভাবে বিমান অকেজো করে দিয়ে যাওয়ায় আমরা বিশ্বাসঘাতকতার শিকার। আমরা বিশ্বাস করি যে, এগুলো জাতীয় সম্পদ। এখন আমরাই সরকার। এই বিমান বা সরঞ্জামগুলো ভবিষ্যতে আমাদের কাজে লাগত।’

জানা গেছে, বর্তমানে ৪৮টি বিমান বা হেলিকপ্টার রয়েছে তালেবানের কাছে। তবে এগুলোর কয়টি কাজ করছে, তা জানা নেই। তালেবান মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ দাবি করেন, তাদের টেকনিক্যাল দল নাকি বিমানগুলোর মেরামতের কাজ করছে। তাই এই সময়কালে বিমানবন্দরের আশেপাশে সাধারণ জনগণকে ঘেঁষতে নিষেধ করা হয়েছে। সূত্র- হিন্দুস্তান টাইমস।

এনএস//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি