ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৮ মে ২০২৪

‘চমক’ দিয়ে ইউক্রেনে হাজির ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২১:২৫, ৯ এপ্রিল ২০২২

বরিস জনসন ও ভলোদিমির জেলেনস্কি

বরিস জনসন ও ভলোদিমির জেলেনস্কি

ঘুণাক্ষরেও টের পায়নি কেউই। ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে দেখা করতে আচমকাই যুদ্ধবিধ্বস্ত ইউক্রেনে হাজির হলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। যুদ্ধ পরিস্থিতির মধ্যেই রাজধানী কিয়েভে পৌঁছে প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কির সঙ্গে করলেন বৈঠকও।

বিবিসি সূত্রে খবর, বরিসের ইউক্রেন সফর নিয়ে কোনো সরকারি ঘোষণা ছিল না। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে জেলেনস্কির বৈঠকের ছবি ব্রিটেনে ইউক্রেনের দূতাবাসের তরফে টুইটারে পোস্ট করার পরেই বিষয়টি প্রকাশ্যে এসেছে। ওই ছবির বিবরণীতে শুধু লেখা রয়েছে- ‘চমক’।

বিবিসির খবর অনুযায়ী, রাশিয়ার সামরিক অভিযানের আবহে গত মাসেই ইউক্রেন সফর করার কথা ভাবছিলেন বরিস। প্রশাসনিক কর্তাদের ইউক্রেন সরকারের সঙ্গে এ বিষয়ে কথা বলে সব বন্দোবস্ত করার নির্দেশও দিয়েছিলেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী। এর পরেই সম্ভব হলো দুই দেশের রাষ্ট্রনায়কের মুখোমুখি বৈঠক।

ইউক্রেনের রাজধানী কিয়েভে প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে জনসনের বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে ডাউনিং স্ট্রিটও।

১০ নং ডাউনিং স্ট্রিটের একজন মুখপাত্র বলেছেন, "ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ইউক্রেনের জনগণের সঙ্গে সংহতি প্রদর্শনে ব্যক্তিগতভাবে প্রেসিডেন্ট জেলেনস্কির সাথে দেখা করতে ইউক্রেন ভ্রমণ করেছেন।

ওই মুখপাত্র বলেন, "তারা ইউক্রেনে যুক্তরাজ্যের দীর্ঘমেয়াদী সহায়তা নিয়ে আলোচনা করবেন এবং যুক্তরাজ্য প্রধানমন্ত্রী আর্থিক ও সামরিক সহায়তার একটি নতুন প্যাকেজ নির্ধারণ করবেন।"

এদিকে, ইউক্রেন প্রেসিডেন্টের অফিসের ডেপুটি হেড অ্যান্ড্রি সিবিহা এক ফেসবুক বার্তায় বলেছেন, জনসন এবং জেলেনস্কি "এক সম্মুখ বৈঠকে" মিলিত হয়েছেন।

তিনি যোগ করেন, "ইউক্রেনের প্রতিরক্ষার সমর্থনে যুক্তরাজ্যের নেতা, যুদ্ধবিরোধী জোটের নেতা, রুশ আগ্রাসীর বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার নেতা।"

এনএস//


Ekushey Television Ltd.





© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি