ঢাকা, মঙ্গলবার   ৩১ জানুয়ারি ২০২৩

উইন্ডিজকে উড়িয়ে এগিয়ে গেল পাকিস্তান

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২৩:০৩, ১৩ ডিসেম্বর ২০২১ | আপডেট: ০০:১২, ১৪ ডিসেম্বর ২০২১

হায়দার আলী

হায়দার আলী

ওয়েস্ট ইন্ডিজের সফর দিয়েই নিজ দেশে আবারও ক্রিকেট আয়োজন করল পাকিস্তান। তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে মোহাম্মদ রিজওয়ান ও হায়দার আলীর ঝোড়ো ফিফটিতে চড়ে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে ২০০ রানের বড় স্কোর গড়ে পাকিস্তান। জবাব দিতে নেমে ১৩৭ রানেই গুটিয়ে যায় উইন্ডিজ। ফলে বড় জয়ে সিরিজে এগিয়ে গেল বাবরের দল।

সোমবার করাচি ন্যাশনাল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত এ ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজ টস জিতে পাকিস্তানকে ব্যাট করতে পাঠালে ৫২ বলে সর্বোচ্চ ৭৮ রান করেন রিজওয়ান। ৩৩ বলে ফিফটি পূরণ করা এই ওপেনারের ইনিংসে ছিল ১০টি চারের মার। 

রিজওয়ানের এটি টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারের ১২তম হাফসেঞ্চুরি, যার মধ্যে চলতি বছরেই এল ১১টি। অন্যদিকে, ২৮ বলে ফিফটি হাঁকিয়ে হায়দার খেলেন ক্যারিয়ার সেরা ৬৮ রানের ইনিংস। তাঁর ৩৯ বলের মারকুটে ইনিংসে ছিল ছয়টি চারের সঙ্গে চারটি বিশাল বিশাল ছয়ের মার।

অথচ, পাকিস্তানের ইনিংসের শুরুটা কিন্তু এমন ভালো ছিল না। ক্যারিবীয় বোলিং তোপে দলীয় মাত্র ১ রানে এবং ৩৫ রানের মাথায় বাবর আজম (০) ও ফখর জামানের উইকেট হারিয়ে বসে স্বাগতিক দল। যেখান থেকে তৃতীয় উইকেটে ১০৫ রান যোগ করেন রিজওয়ান ও হায়দার মিলে। 

এই জুটির পর আবারও স্বাগতিক ইনিংসে হানা দেয় ক্যারিবীয় ঝড়। যাতে মাত্র ৭ রানের ব্যবধানেই আরও দুটি উইকেট হারিয়ে ফেলে পাকিস্তান। তবে শেষ দিকে মাত্র ১০ বলে দুটি করে ছক্কা-চার হাঁকানো মোহাম্মদ নওয়াজের ৩০ রানের ক্যামিওতে চড়ে দুইশ রানের পুঁজি দাঁড় করায় বাবর বাহিনী।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের পক্ষে রোমারিও শেফার্ড ২টি এবং আকিল হোসেইন, ওশানে থমাস, ডমিনিক ড্রেকস ও ওডেন স্মিথ প্রত্যেকে একটি করে উইকেট লাভ করেন।

এদিকে, পাহাড়সম ওই রানের জবাব দিতে নেমে পাকিস্তানী বোলাদের তোপের মুখে পড়ে শুরু থেকেই নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে উইন্ডিজ। বিশেষ করে দলটির স্পিনারদের সামনে একে একে মুখ থুবড়ে পড়ে ক্যারিবীয় ব্যাটাররা। ১৪তম ওভারে ৮৮ রান তুলতেই হারিয়ে বসে ৭ম উইকেট।

এরপর অবশ্য ওডেন স্মিথকে কিছুটা আক্রমণাত্মক খেলে চেষ্টা চালিয়ে যান রোমারিও শেফার্ড। ২৮ বলে ইনিংস সর্বোচ্চ ৪৬ রানের জুটি গড়েন দুজনে। তবে তা ওই দুইশ রান ছোঁয়ার জন্য যথেষ্ট ছিল না। 

১৮তম ওভার করা শাহিন আফ্রিদি চতুর্থ ওভার থেকে ১৫ রান তুলে স্মিথ (১৬ বলে ২৪) আউট হলে শেষ দুই ওভারে ক্যারিবীয়দের প্রয়োজন পড়ে ৬৭ রানের। পরের ওভারে ওয়াসিম এসে দ্বিতীয় বলেই সমান বলে ২১ করা শেফার্ডকে তুলে নিলে শেষ পর্যন্ত ৬৪ রানের বড় পরাজয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে উইন্ডিজ।

পাকিস্তানের পক্ষে ৪০ রান দিয়ে ৪টি উইকেট দখল করেন মোহাম্মদ ওয়াসিম জুনিয়র। তবে মাত্র ১৭ রানের বিনিময়ে ৩টি উইকেট তুলে নেন শাদাব খান। এছাড়া আফ্রিদি, নওয়াজ ও রউফ নেন একটি করে উইকেট। তবে ম্যাচ সেরা হন হায়দার আলীই।

দুই দলের বাকি ম্যাচগুলো অনুষ্ঠিত হবে মঙ্গল ও বৃহস্পতিবার করাচিতেই। এরপর দুই দল আগামী ১৮, ২০ ও ২২ ডিসেম্বর তিনটি ওয়ানডে ম্যাচও খেলবে, যা আইসিসি বিশ্বকাপ সুপার লিগের অংশ।

পাকিস্তান একাদশ: 
বাবর আজম (অধিনায়ক), শাদাব খান, আসিফ আলী, ফখর জামান, হায়দার আলী, ইফতিখার আহমেদ, মোহাম্মদ নওয়াজ, মোহাম্মদ রিজওয়ান, মোহাম্মদ ওয়াসিম জুনিয়র, শাহীন শাহ আফ্রিদি এবং হারিস রউফ।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ একাদশ: 
নিকোলাস পুরান (অধিনায়ক), শাই হোপ, ব্রান্ডন কিং, শামার ব্রুকস, রোভম্যান পাওয়েল, ওডেন স্মিথ, রোমারিও শেফার্ড, আকিল হোসেইন, ডমিনিক ড্রেকস, ওশানে থমাস এবং ডেভন থমাস।

এনএস//


Ekushey Television Ltd.

© ২০২৩ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি