ঢাকা, রবিবার   ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, || পৌষ ১ ১৪২৬

Ekushey Television Ltd.

দলের কাঠামো ভাঙতে চান বাংলাদেশ কোচ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৯:৩৩ ১৬ নভেম্বর ২০১৯ | আপডেট: ১৯:৩৫ ১৬ নভেম্বর ২০১৯

বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো

বাংলাদেশ কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো

ইন্দোরে বিরাট কোহলিদের কাছে রীতিমত নাকানিচুবানি খেয়েছে মুমিনুলরা, ব্যাটে-বলে দাঁড়াতেই পারেনি বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসের ব্যাটিংয়ে যথারীতি বিপর্যস্ত বাংলাদেশ। শনিবার (১৬ নভেম্বর) টেস্টের তৃতীয় দিনেই শেষ হয়েছে ম্যাচ, যাতে বাংলাদেশ হেরেছে ইনিংস ও ১৩০ রানের বিশাল ব্যবধানে।

প্রথম ইনিংসে মাত্র ১৫০ রানে অল-আউট হয়েছিল সফরকারীরা। এরপর নির্বিষ বোলিংয়ের সুযোগে ৬ উইকেটে ৪৯৩ রানে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে ভারত। আর দ্বিতীয় ইনিংসে নেমে মুশফিকের ফিফটির কল্যাণে ২১৩তেই গুটিয়ে যায় মুমিনুলরা।

ম্যাচে প্রতিপক্ষ ভারত যেখানে খেলেছে- ছয় ব্যাটসম্যান, তিন পেসার আর দুই স্পিনার নিয়ে। সেখানে বাংলাদেশ খেলছে মাত্র ২ পেসার আর দুই স্পিনার নিয়ে! ব্যাটসম্যানদের কথা নাই-বা বললাম। 

যে কারণে শুক্রবারই দিনের খেলা শেষে বাংলাদেশ দলের কোচ রাসেল ডোমিঙ্গো বারবার বললেন, দলের কাঠামোগত পরিবর্তনের কথা। ডোমিঙ্গো বলেন, এভাবে বেশিদূর এগিয়ে যাওয়া যাবে না। পরিবর্তন আনতেই হবে।

টেস্ট আঙিনায় ২০ বছরে পা দিতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। তবুও এখনও তারা খুঁজে পায়নি সঠিক সমন্বয়। পারে না দলে তিন পেসার খেলাতে। প্রধান কোচ তাই বললেন, 'কোনোও সন্দেহ নেই দলের কাঠামোগত পরিবর্তন আনতে হবে। নাহলে ফল একই হতে থাকবে। নির্বাচকদের সঙ্গে বসে সামনে এগোনোর পথ খুঁজে বের করতে হবে। 
তিনি আরও বলেন, আমাকে চিহ্নিত করতে হবে কোন কোন খেলোয়াড় দলকে সামনে এগিয়ে নিতে পারবে। যদি আমাদের নতুন মুখ নিয়ে এগোতে হয়, কিছুটা সময় ভুগতে হয়, আমার মনে হয় বর্তমানে যা হচ্ছে তার চেয়ে খারাপ কিছু হবে না। 

তবে বর্তমান দলে যারা পারফর্ম করছেন তাদেরকে সম্মান জানিয়ে ডোমিঙ্গো বলেন, হ্যাঁ, এই দলে দারুণ কিছু খেলোয়াড় আছে, তাদের সম্মান করতে হবে। বাংলাদেশের হয়ে তাদের পারফরম্যান্সকে সম্মান জানাতে হবে। তবে দলের স্বার্থই আপনাকে বড় করে দেখতে হবে।'

এদিকে, ইন্দোর টেস্টে তিন পেসারের জায়গায় বাংলাদেশ দল কেন একজন অতিরিক্ত ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলেছে- এমন প্রশ্নের জবাবে ডোমিঙ্গো মুখে ছিল অসহায়ত্বের প্রতিচ্ছবি। 

হাতে আর কোন অপশন নেই উল্লেখ করে কোচ বলেন, ‘যখন আপনার দলের শীর্ষ ছয় ব্যাটসম্যানের গড় ৪৫-৫০ হবে, আপনি তখন অনায়াসে ছয় ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলতে পারেন। ভারতীয় ব্যাটিং লাইনআপ দেখেন। দুর্ভাগ্য, আমাদের তেমন ব্যাটসম্যান নেই। এ ঘাটতি পুষিয়ে নিতে একজন অতিরিক্ত ব্যাটসম্যান নিয়ে খেলছি। তবে আপনি যদি উইকেট না পান, তখন শুনতে হবে কেন অতিরিক্ত বোলার নিইনি।’

ডোমিঙ্গোর পরিসংখ্যান একটুও ভুল নয়। টেস্টে একমাত্র মুমিনুল হক ছাড়া আর কারোরই যে ব্যাটিং গড় ৪০-এর ওপরে নয়। মুশফিকুর রহিম আর মাহমুদউল্লাহর গড় ৩০-এর ঘরে। বাকি সবাই ৩০-এর নিচে। এই যদি হয় ব্যাটসম্যানদের অবস্থা! সেক্ষেত্রে, একজন কোচ কীভাবে ছয় ব্যাটসম্যান নিয়ে তার রণকৌশল সাজাবেন! 

তাইতো কাঠামো ভাঙার কথা ডোমিঙ্গোর মুখে। তিনি বলেন, 'দুই পেসার নিয়ে খেলা সত্যিই কঠিন। আমাদের তৃতীয় একজন পেসার খুঁজে বের করতে হবে, যে ব্যাটিংও করতে পারে। সাইফউদ্দিন আছে, কিন্তু সে চোটে পড়েছে। দলের যে কাঠামো, এটা নিয়ে ভাবার সময় হয়েছে। আমাদের আরেকজন পেসার খুঁজে পেতে হবে যে সাত কিংবা আটে ব্যাটিং করতে পারে।'

এ ক্ষেত্রে সৌম্যকে দিয়ে কাজ চালিয়ে নেয়া যেতে পারে বলে মনে করছেন অনেকে। কারণ, সৌম্যের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ের পাশাপাশি মিডিয়াম পেসটাও মোটামুটি চালিয়ে নেয়ার মত। তবে একজন তৃতীয় পেসারের মত নয় অবশ্যই। তাই এখন একজন ব্যাটিং জানা তৃতীয় পেসার খোঁজে বাংলাদেশ কোচ।

এনএস/

© ২০১৯ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি