ঢাকা, সোমবার   ২১ জুন ২০২১, || আষাঢ় ৭ ১৪২৮

শচীন-রফিকের দ্বৈরথ দেখাবে টি-স্পোর্টস

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ১৮:২৭, ১ মার্চ ২০২১

মোহাম্মদ রফিক ও শচীন টেন্ডুলকার

মোহাম্মদ রফিক ও শচীন টেন্ডুলকার

২৬ বছরের পুরোনো স্মৃতি আজও জ্বলজ্বল করছে। ১৯৯৫ সালের ৫ এপ্রিল- শারজায় এশিয়া কাপে দেশের হয়ে প্রথম খেলতে নেমেছেন তিনি। প্রতিপক্ষ আজহার উদ্দিনের ভারত। বাংলাদেশ সাকল্যে ১৬৩, তাড়া করতে নেমে মনোজ প্রভাকর আর শচীন টেন্ডুলকারের জুটি হাফসেঞ্চুরি পার করে দিয়েছে। উইকেট পড়ার কোনও লক্ষণ নেই। আর তখনই বাংলাদেশের অভিষিক্ত বাঁহাতি স্পিনার মোহাম্মদ রফিকের বলে বোল্ড হয়ে যান শচীন টেন্ডুলকার। সেদিন ওই একটি উইকেটই পড়েছিল ভারতের।

এ বিষয়ে মোহাম্মদ রফিক বহুবার বলেছেন, তার ক্যারিয়ারের স্মরণীয় মুহূর্ত ছিল টেন্ডুলকারকে বোল্ড করার ওই ঘটনাটি। এর পরও বহুবার শচীনের উইকেট নিয়েছেন মোহাম্মদ রফিক। দু'জনের সেই দ্বৈরথ আবার এই প্রজন্মের দেখার সুযোগ হচ্ছে 'রোড সেফটি ওয়ার্ল্ড সিরিজে'। 

স্বভাবতই টুর্নামেন্ট নিয়ে কাজ করছে বাড়তি উন্মাদনা। এবার দর্শকদের জন্য সুখবর নিয়ে এল দেশের প্রথম ও একমাত্র ক্রীড়া চ্যানেল টি স্পোর্টস। রোড সেফটি ওয়ার্ল্ড সিরিজের সবগুলো ম্যাচই সরাসরি সম্প্রচার করা হবে টি স্পোর্টসে।

ভারতের ছত্তিশগড়ের রায়পুরে ৫ মার্চ থেকে শুরু হচ্ছে সাবেক তারকা ক্রিকেটারদের টি-২০ টুর্নামেন্ট। ১৭ দিনের এই টুর্নামেন্টে স্বাগতিক ভারতসহ বাংলাদেশ, শ্রীলঙ্কা, দক্ষিণ আফ্রিকা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলঙ্কান ক্রিকেটাররা অংশ নেবেন। গত শনিবার এই টুর্নামেন্টে অংশ নিতেই 'বাংলাদেশ লিজেন্ডস' দল নিয়ে ভারত রওনা হয়েছেন রফিক-পাইলটরা।

টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচেই শচীন টেন্ডুলকারের ভারতের মুখোমুখি হবে মোহাম্মদ রফিকের বাংলাদেশ। সিরিজের সব ম্যাচ দেখা যাবে টি-স্পোর্টসে। মোহাম্মদ রফিকের নেতৃত্বে বাংলাদেশ দলে রয়েছেন খালেদ মাহমুদ সুজন, খালেদ মাসুদ পাইলট, নাফিস ইকবালরা। পুরোনো স্মৃতি উসকে দেওয়া এই ওয়ার্ল্ড সিরিজে শচীন, শেবাগ, যুবরাজ, জহির খান, মোহাম্মদ কাইফরা খেলবেন ভারতের হয়ে।

ইংল্যান্ডের হয়ে থাকছেন কেভিন পিটারসেন, ওয়াইজ শাহ, ম্যাথু হগার্ড, ক্রিস ট্রিমলেট, রায়ান সাইডবটম, জনাথন ট্রটরা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে খেলতে নামবেন লারা, কার্ল হুপার, ডোয়াইন স্মিথরা। দক্ষিণ আফ্রিকার জন্টি রোডস, নিকি বোয়ে, শ্রীলঙ্কার থারাঙ্গা, কুলাসেকারা, অজন্তা মেন্ডিসরাও পুরোনো দিনের স্মৃতি উসকে দিতে নামবেন মাঠে।

ভারতের মহারাষ্ট্র রোড সেফটি সেলের তত্ত্বাবধানে এই ওয়ার্ল্ড সিরিজ গতবছর শুরু হয়েছিল। চারটি ম্যাচও খেলা হয়েছিল। কিন্তু চারটি ম্যাচ মাঠে গড়ানোর পর গত বছরের ১১ মার্চ করোনার কারণে তা স্থগিত হয়ে যায়। সেবার অস্ট্রেলিয়াসহ মাত্র পাঁচটি দল অংশ নিয়েছিল। কিন্তু এবার করোনার কারণেই ব্রেট লিদের অস্ট্রেলিয়া দল অংশ নিচ্ছে না। সে জায়গাতেই এবার খেলছে বাংলাদেশ ও ইংল্যান্ড দল। 

এই আসরে মোহাম্মদ রফিক পাখির চোখ করে আছেন শচীন টেন্ডুলকারের উইকেটটির দিকে। অন্যদিকে খালেদ মাহমুদ সুজনের লক্ষ্য সাবেক ক্যারিবিয়ান তারকা ব্রায়ান লারার উইকেটটি পাওয়ার। মাত্র কিছুদিন আগেই কক্সবাজারে সাবেক তারকাদের একটি টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হয়েছিল। যে কারণে ভারতের এই টুর্নামেন্টে খেলার একটা প্রস্তুতি এবং মানসিক শক্তিও জোগাড় করে নিয়েছেন রফিকরা। তবে সবকিছুর পর এই ওয়ার্ল্ড সিরিজ আয়োজকদের লক্ষ্য একটাই- সড়কে দুর্ঘটনা রোধে সচেতনতা বৃদ্ধি। খেলতে গিয়ে সেই সচেতনতার বার্তাও দেবেন রফিকরা।

বাংলাদেশের সূচি: 
৫ মার্চ (বাংলাদেশ-ভারত); ৭ মার্চ (বাংলাদেশ-ইংল্যান্ড); ১০ মার্চ (বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা); ১২ মার্চ (বাংলাদেশ-উইন্ডিজ); ১৫ মার্চ (বাংলাদেশ-দক্ষিণ আফ্রিকা); ১৭ ও ১৯ মার্চ (সেমিফাইনাল); ২১ মার্চ (ফাইনাল)।

রোড সেফটি ওয়ার্ল্ড সিরিজে বাংলাদেশ স্কোয়াড:
মোহাম্মদ রফিক (অধিনায়ক), জাভেদ ওমর বেলিম, মেহরাব হোসেন অপি, নাফিস ইকবাল খান, হান্নান সরকার, আফতাব আহমেদ, রাজিন সালেহ, খালেদ মাহমুদ সুজন, খালেদ মাসুদ পাইলট, আব্দুর রাজ্জাক, মুশফিকুর রহমান বাবু, মোহাম্মদ শরীফ, এ এন এম মামুন উর রশিদ, আলমগীর কবির।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি