ঢাকা, বুধবার   ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, || আশ্বিন ৬ ১৪২৮

স্পিন রাজত্বের ম্যাচে অসহায় বাংলাদেশ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:৪৭, ২ মে ২০২১ | আপডেট: ০৯:৫০, ২ মে ২০২১

প্রথম দুই দিন পালেকেল্লের উইকেট ব্যাটসম্যানদের পক্ষে কথা বললেও তৃতীয় দিনের শুরু থেকেই বাউন্সের সাথে টার্ন পেয়েছেন দুই দলের স্পিনাররাই। এ দিনে ২৯২ রান উঠলেও উইকেট পড়েছে ১৩টি। এর মধ্যে ১০টিই নিয়েছেন স্পিনাররা। আর স্পিনারদের রাজত্বের দিনে দ্বিতীয় টেস্টে এখনও চালকের আসনে যথারীতি শ্রীলঙ্কা।

শনিবার বিকেলে লঙ্কান স্পিন বিষে মাত্র ৩৭ রানেই শেষ ৭ উইকেট হারিয়ে বাংলাদেশ যখন ২৫১ রানেই গুটিয়ে যায়, তখন তাদের ফলোঅন না করিয়ে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে দুই স্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ ও তাইজুল ইসলামের ঘূর্ণিতে ১৫ রানের মধ্যে দুই উইকেট হারায় শ্রীলঙ্কা। শেষ পর্যন্ত আরও ২ রান সংগ্রহ করে শেষ বিকালটা নিরাপদে কাটিয়ে দিয়ে তৃতীয় দিন শেষে ৮ উইকেটে হাতে রেখে ২৫৯ রানের লিড নিয়েছে স্বাগতিকরা।

এর আগে দিনের শুরুতে ৬ উইকেটে ৪৬৯ রান নিয়ে ব্যাট করতে নামা শ্রীলঙ্কা আর মাত্র ২৪ রান যোগ করে ১টি উইকেট হারিয়ে ৪৯৩ রানে প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে। ৩৩ রান করে রমেশ মেন্ডিস ফিরে যান তাসকিন আহমেদের চতুর্থ শিকার হয়ে। ডিকওয়েলা অপরাজিত থাকেন ৭৭ রান করে।

বাংলাদেশের বোলারদের পক্ষে সবচেয়ে সফল ছিলেন তাসকিন আহমেদ। ১২৭ রান দিয়ে চার উইকেট শিকার করেন এই পেসার। শ্রীলঙ্কা  ইনিংস ঘোষণা না করলে হয়তো ক্যারিয়ারের প্রথম পাঁচ উইকেটের স্বাদ পেতেন তাসকিন। এছাড়া একটি করে উইকেট পেয়েছেন শরিফুল ইসলাম, তাইজুল ইসলাম ও মেহেদি হাসান মিরাজ।

জবাব দিতে ব্যাটিংয়ে নামে বাংলাদেশ। দিনের প্রথম সেশন থেকেই দারুণ টার্ন পেতে থাকেন লঙ্কান স্পিনাররা। তাই বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের কাজটা বেশ কঠিনই ছিলো। প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসের মতো একটা আত্ববিশ্বাসী শুরুর প্রয়োজন ছিল খুব। দুর্দান্ত সব শটের পসরা সাজিয়ে কাঙ্ক্ষিত সেই শুরুই এনে দিয়েছিলেন তামিম ইকবাল।

তামিমের সহজাত ব্যাটিংয়ে উদ্বোধনী জুটিতে ৯৮ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশ। কিন্তু প্রথম সেশনের পুরোটা সময় দাপট দেখালেও স্বস্তি নিয়ে মধ্যাহ্নভোজের বিরতিতে যেতে পারেনি বাংলাদেশ। প্রথম সেশনের শেষ দুই ওভারে ওপেনার সাইফ হাসান ও নাজমুল হোসাইন শান্তকে হারায় বাংলাদেশ।

সাইফ হাসানের ব্যাট থেকে আসে ক্যারিয়ার সেরা ২৫ রান এবং শান্ত ফিরে যান রানের খাতা খোলার আগেই। পর পর দুই উইকেট হারিয়ে ৯৯ রান নিয়ে মধ্যাহ্নভোজের বিরতিতে যায় বাংলাদেশ। দ্বিতীয় সেশনের শুরুতেও আধিপত্য ধরে রাখে বাংলাদেশ।

অধিনায়ক মোমিনুল হককে সাথে নিয়ে তৃতীয় উইকেট জুটিতে ৫২ রান যোগ করে সাবলীলভাবেই সেঞ্চুরির দিকে এগোচ্ছিলেন তামিম। কিন্তু আগের ম্যাচের মতোই নার্ভাস নাইন্টিজে কাটা পড়ে সেঞ্চুরি মিস করেন এই ওপেনার। তামিম ফিরে যান ৯২ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলে।

তামিমের বিদায়ের পর লঙ্কান স্পিনারদের দেখে শুনে খেলে চতুর্থ উইকেটে মোমিনুল হক ও মুশফিকুর রহিম ৬৩ রান যোগ করলেও এরপরই ধস নামে বাংলাদেশের ইনিংসে। একে একে ফিরে যান মোমিনুল হক, মুশফিকুর রহিম ও লিটন দাস। এর মধ্যে মোমিনুল করেন ৪৯ রান, আর মুশফিকের ব্যাট থেকে আসে ৪০ রান।

এরপর দ্রুত বাকি উইকেট হারিয়ে ২৫১ রানে অলআউট হয়ে যায় বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে শ্রীলঙ্কা লিড পায় ২৪২ রানের। শ্রীলঙ্কার বোলারদের পক্ষে একাই ৬টি উইকেট শিকার করেন প্রভীন জয়াবিক্রমা। এছাড়া রমেশ মেন্ডিস ও সুরঙ্গা লাকমল নেন ২টি করে উইকেট।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি