ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৮ মে ২০২৪

রাহুলের শতক, সেঞ্চুরিয়নে চালকের আসনে ভারত

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ২২:০৬, ২৬ ডিসেম্বর ২০২১

লোকেশ রাহুলের শতক উদযাপন

লোকেশ রাহুলের শতক উদযাপন

গ্যাবার দূর্গে গিয়ে অস্ট্রেলিয়াকে বিধ্বস্ত করে টেস্ট সিরিজ জিতেছে। এবার টিম ইন্ডিয়া সেঞ্চুরিয়নে মুখোমুখি দক্ষিণ আফ্রিকার। সুপারস্পোর্ট পার্কে অবশ্য দক্ষিণ আফ্রিকারই পাল্লাটা ভারি। ২৬ টেস্টের মধ্যে জয় তুলে নিয়েছে ২১টিতে, হেরেছে মাত্র ২টি। 

কোনও একটি মাঠে নির্দিষ্ট কোনও দলের সাফল্যের নিরিখে সেঞ্চুরিয়নকে দক্ষিণ আফ্রিকার দূর্গ বলা মোটেও ভুল হবে না। সেদিক থেকে ভারতের সামনে সিরিজের শুরুতেই কঠিন চ্যালেঞ্জ অপেক্ষা করছে- তা নিশ্চিত।

তবে এই মাঠেই রোববার শুরু হওয়া টেস্টের প্রথম দিনের শেষে অবশ্য সুবিধাজনক অবস্থানেই আছে টিম ইন্ডিয়া। নির্ধারিত ৯০ ওভারে ৩ উইকেটের বিনিময়ে ২৭২ রান তুলেছে কোহলির দল। 

দলের পক্ষে শতক হাঁকিয়ে ওপেনার লোকেশ রাহুল ১৭টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ২৪৮ বলে ১২২ রান করে অপরাজিত আছেন। সঙ্গী আজিঙ্কা রাহানে আছেন ৮টি বাউন্ডারির সাহায্যে ৮১ বলে ৪০ রান করে। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে ৩টি উইকেটই নিয়েছেন লুঙ্গি এনগিদি।

এর আগে সেঞ্চুরিয়নের সুপারস্পোর্ট পার্কে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিং নিয়েছিলেন কোহলি। চার পেসারে নেমেছিল দক্ষিণ আফ্রিকা। সঙ্গে ছিলেন অভিজ্ঞ স্পিনার কেশব মহারাজও। কিন্তু আপ্রাণ চেষ্টা করেও প্রথম আড়াই ঘণ্টায় ভারতের একটাও উইকেট ফেলতে পারেন নি কাগিসো রাবাদা, লুঙ্গি এনগিদিরা। দক্ষিণ আফ্রিকার সব থেকে অভিজ্ঞ দুই পেসারকে অনায়াসে খেলে দেন কেএল রাহুল এবং মায়াঙ্ক আগারওয়াল। এমনকি, লম্বা তরুণ বাঁ হাতি পেসার মার্কো জানসেনকে এনেও লাভ হয়নি।

মধ্যাহ্নভোজের বিরতি পর্যন্ত ভারতের কোনও উইকেট পড়েনি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে মুম্বাইয়ে যেমন খেলেছিলেন, সেই ছন্দই ধরে রাখলেন মায়াঙ্ক। তবে অর্ধশতরানের পর মনঃসংযোগে চ্যুতি ঘটে তাঁর। যে কারণে এনগিদির ভেতরে আসা বলে পরাস্ত হয়ে এলবিডব্লিউর শিকার হন। তাঁর আগে ১২৩ বলে ৯ চারে ৬০ রানের ইনিংস খেলেন এই ওপেনার।

এরপর নামলেন চেতেশ্বর পুজারা। তিনি এলেন এবং গেলেন। প্রথম বলেই পিটারসেনের হাতে ক্যাচ। ঘরের মাঠ হোক বা বিদেশ, পুজারার খারাপ ছন্দ যেন কাটছেই না। চলতি বছরে এই নিয়ে তিনবার শূন্য রানে আউট হলেন। গড় নামতে নামতে ঠেকেছে তিরিশের নীচে। 

তবে রাহুলকে নিয়ে আলাদা করে কিছু বলার নেই। ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়ার পর এবার দক্ষিণ আফ্রিকাতেও শতরান হয়ে গেল তাঁর। দিনের শেষে ১২২ রানে ব্যাট করছেন তিনি। দেশের মাটি হোক বা বিদেশের, ওপেনার হিসেবে ভারতীয় দলে রীতিমতো শক্তিশালী জায়গা তৈরি করে নিয়েছেন নবনিযুক্ত সহ-অধিনায়ক।

যাঁর খেলা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল, সেই রাহানেও দিনের শেষে আশা জাগালেন। ৪০ রানে অপরাজিত। তবে যে ছন্দে তিনি খেলেছেন, তাতে আশান্বিত সমর্থকরা। 

এত সবের মধ্যেও সমর্থকদের মনে একটু চিন্তা থেকে গেল এক কোহলির কারণে। নখদন্তহীন প্রোটিয়া বোলিংয়ের সামনেও বড় রান পেতে ব্যর্থ ভারত অধিনায়ক। ৯৪ বল খেলে মাত্র চারটি বাউন্ডারিতে ৩৫ রান করেন তিনি।

এনএস//


Ekushey Television Ltd.





© ২০২৪ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি