ঢাকা, সোমবার   ২৫ অক্টোবর ২০২১, || কার্তিক ১০ ১৪২৮

অবশেষে স্বরূপে ফিরলেন মুস্তাফিজ

একুশে টেলিভিশন

প্রকাশিত : ০৯:২১, ৩ মে ২০২১ | আপডেট: ০৯:২৭, ৩ মে ২০২১

উইকেট নেয়ার পর মুস্তাফিজের উদযাপন। ছবি- ক্রিকইনফো

উইকেট নেয়ার পর মুস্তাফিজের উদযাপন। ছবি- ক্রিকইনফো

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) চলতি আসরের নিলাম যখন এক কোটি রুপিতে তাকে দলে ভেড়ালো রাজস্থান, তখনও কারও মনেই হয়নি একাদশে সুযোগ পাবেন তিনি। তবে কথায় আছে, ভাগ্যে থাকলে ফেরায় কে! ইংলিশ পেসার জোফরা আর্চারের ইনজুরিতে কপাল খুলে গেলো। সবকটি ম্যাচেই সুযোগ পেলেন মূল একাদশে। সুযোগ পেয়েই করলেন বাজিমাত, নিজের স্লোয়ার আর কাটার ভেলকিতে প্রতিপক্ষের ব্যাটসম্যানদের নাঁচিয়েছেন তিনি।

নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন- কাটার মাস্টার খ্যাত মুস্তাফিজুর রহমানের কথাই বলছি। কেউ কি ভেবেছিলেন যে, মুস্তাফিজ এবার আইপিএলে ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে? অনেকেরই উত্তর হবে- ‘না’।

রোববার সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিপক্ষে ম্যাচে খেলতে নেমে দূর্দান্ত বোলিং করেন মুস্তাফিজ। ফিজের দূর্বার বোলিং পারফরম্যান্সে সহজ জয় পেয়েছে তার দল রাজস্থান। চার ওভারে ২০ রান খরচায় শিকার করেছেন তিনটি গুরুত্বপূর্ণ উইকেট। সেইসঙ্গে দলের জয়েও বড় অবদান রাখেন তিনি।

এদিন রাজস্থানের ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারেই বোলিংয়ে আসেন মুস্তাফিজ। প্রথম ওভারে ৬ রান দিলেও উইকেট নিতে পারেননি। এরপর দলীয় সপ্তম ওভারে নিজের দ্বিতীয় ওভারে বল করতে এসে প্রথম বলেই ব্যাট হাতে দ্যুতি ছড়ানো মানিশ পান্ডেকে বোল্ড করে নিজের প্রথম শিকার করেন ফিজ। সেই সাথে হায়দ্রাবাদ শিবিরে প্রথম আঘাত হানেন মুস্তাফিজ।

এরপর দলীয় ১৫তম এবং ব্যক্তিগত তৃতীয় ওভারে বোলিংয়ে আসেন তিনি। ওই ওভারের তৃতীয় বলেই তার স্লোয়ার ভেলকিতে ক্যাচ দিয়ে ফেরত যান মোহাম্মদ নবী। যাতে তিন ওভারে ১৩ রান দিয়ে ২ উইকেট শিকার করেন মুস্তাফিজ।

এরপর ইনিংসের ১৮তম ও ব্যক্তিগত শেষ ওভার করতে এসে শিকার করেন রশিদ খানের উইকেট। এ ওভারে ৭ রানের বিনিময়ে আরও কিছু সুযোগ তৈরি করলেও সেগুলোতে সাফল্য পাননি ফিজ। তবে দিনশেষে নামের পাশে লিখিয়েছেন তিন তিনটি উইকেট!

যাতে তার দল হায়দ্রাবাদ জয় পায় ৫৫ রানের বড় ব্যবধানে। চলতি আসরে এদিনের ২০ রানে ৩ উইকেটই এখন পর্যন্ত মুস্তাফিজের সেরা বোলিং ফিগার। যা নিয়ে এখন পর্যন্ত ২৭ ওভার বল করে ২২৪ রানের বিনিময়ে ফিজের মোট শিকার ৮টি। সর্বোচ্চ উইকেট শিকারির তালিকায় অবস্থান ১১ নম্বরে।

যেখানে তিনি কোনও ম্যাচ খেলারই সুযোগ পাবেন কিনা তা নিয়েই ছিলো সংশয়! সেখানে রাজস্থানের বোলিং বিভাগের অন্যতম ভরসার নাম এখন মুস্তাফিজ। তার স্লোয়ার আর কাটার ভেলকি ইতোমধ্যেই মুগ্ধ করেছে সবাইকে। অর্থাৎ যতই পুরনো হচ্ছেন মুস্তাফিজ, ততই বাড়ছে তার বোলিং জাদুর ধার।

এনএস/


Ekushey Television Ltd.

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। একুশে-টেলিভিশন | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি